বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্র ২০২৪: সহজ সিটে নতুন প্রার্থীর ওপর ভরসা তৃণমূলের

মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্র ২০২৪: সহজ সিটে নতুন প্রার্থীর ওপর ভরসা তৃণমূলের

প্রচারে বাপি হালদার (Saikat Paul)

সর্বশেষ লোকসভা নির্বাচনে চৌধুরী মোহন জাটুয়া ২ লক্ষ ৩ হাজার ৯৭৪ ভোটে এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন। ২০১৪ সালে এই কেন্দ্রে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছিল সিপিআইএম এবং ২০১৯ সালে তা বিজেপির দখলে যায়।

মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্রটি ১৯৬২ সালে প্রথম আত্মপ্রকাশ করে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় অবস্থিত এই লোকসভা কেন্দ্রটি বর্তমানে তপশিলি জাতির জন্য সংরক্ষিত l ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের তথ্য বলছে, এই কেন্দ্রে মোট ভোটদাতা ছিলেন ১৪ লক্ষ ৮৮ হাজার ৭৮৪ জন। সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের চৌধুরী মোহন জাটুয়া এই কেন্দ্র থেকে জয় লাভ করে গত লোকসভা নির্বাচনে। পাথরপ্রতিমা, কাকদ্বীপ, সাগর, কুলপি, রায়দিঘি, মন্দির বাজার এবং মগরাহাট পশ্চিম এই সাতটি বিধানসভা কেন্দ্র নিয়ে মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্র গঠিত। এরমধ্যে মন্দির বাজার বিধানসভা কেন্দ্রটি তপশিলি জাতির জন্য সংরক্ষিত। সুন্দরবন লাগোয়া এই লোকসভা কেন্দ্রের কর্মসংস্থানের অভাব, বাঘের হামলায় মানুষের মৃত্যু ইত্যাদি ইস্যুগুলি গুরুত্বপূর্ণ। মথুরাপুর লোকসভা ক্ষেত্রের বিস্তীর্ণ অঞ্চল তেভাগা আন্দোলন, ৫০-৬০ দশকের কৃষক আন্দোলনের গুরুত্বপূর্ণ জায়গা।

এবার তৃণমূলের হয়ে এই আসনে টিকিট দেওয়া হয়েছে বাপি হালদারকে। সিপিএমের হয়ে আছেন শরৎ চন্দ্র হালদার। অন্যদিকে বিজেপির প্রার্থী অশোক পুকাইত। এই আসনে বিজেপি ও সিপিএম লড়াইয়ে আছে, কিন্তু শেষবিচারে ধারে ও ভারে অনেকটা এগিয়ে তৃণমূল। পয়লা জুন  সপ্তম দফায় ভোট মথুরাপুরে। 

১৯৬২ সাল থেকে আজ পর্যন্ত মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচনী ফলাফল জেনে নেওয়া যাক। তৃতীয় লোকসভা নির্বাচন অর্থাৎ ১৯৬২ সালে মথুরাপুর কেন্দ্র থেকে জাতীয় কংগ্রেসের পূর্ণেন্দুশেখর নস্কর জয়যুক্ত হন। ১৯৬৭ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রটি জাতীয় কংগ্রেসের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয় ভারতের কমিউনিস্ট পার্ট’র আনসারী হালদার। এর পরবর্তী ১৯৭১, ১৯৭৭ এবং ১৯৮০ পর পর তিনটি লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি মার্কসবাদীর প্রার্থীরা ১৯৮৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে মনোরঞ্জন হালদার জাতীয় কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এই আসনটিতে জয়ী হন। ফের ১৯৮৯ সালের নবম লোকসভা নির্বাচনে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি, জাতীয় কংগ্রেসের কাছ থেকে এই আসনটি ছিনিয়ে নেয়। রাধিকা রঞ্জন প্রামাণিক কংগ্রেসের প্রার্থীকে ২২ হাজার ৬৩২ ভোটে পরাজিত করেন এই নির্বাচনে। ৮৪ শতাংশ মানুষ ভোটদানে অংশগ্রহণ করেছিল।

১৯৯৯ সালের লোকসভা নির্বাচন পর্যন্ত রাধিকার রঞ্জন প্রামানিক পরপর পাঁচবার এই কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন। ২০০৪ সালের লোকসভায় সিপিআই(এম) এই কেন্দ্রে বাসুদেব বর্মনের হাত ধরে জয়লাভ করে। ৮২ হাজার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীকে পরাজিত করেন বাসুদেব বর্মন। তবে, ২০০৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রটি সিপিআইএমের কাছ থেকে তৃণমূল কংগ্রেস ছিনিয়ে নেয়। চৌধুরী মোহন জাটুয়া নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীকে ১ লক্ষ ৩০ হাজারের কাছাকাছি ভোটে পরাজিত করেন। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে ওই কেন্দ্রটি থেকে চৌধুরী মোহন জাটুয়া জয়যুক্ত হন এবং তার ভোটের মার্জিন বেড়ে দাঁড়ায় ১ লক্ষ ৩৮ হাজার ৪৩৬। সর্বশেষ লোকসভা নির্বাচনে চৌধুরী মোহন জাটুয়া ২ লক্ষ ৩ হাজার ৯৭৪ ভোটে এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন। ২০১৪ সালে এই কেন্দ্রে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছিল সিপিআইএম এবং ২০১৯ সালে তা বিজেপির দখলে যায়। ২০১৯ সালে বিজেপির ভোট শতাংশ ৩২ শতাংশ বৃদ্ধি পায় এবং সিপিএম ৩২ শতাংশ ভোট হারায়। লোকসভা নির্বাচনে নিরিখে শেষ পাঁচটি লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে ভোটদানের হার থেকেছে ৮০ থেকে ৮২ শতাংশ।

এবার আমরা দেখে নেব মথুরাপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত বিধানসভা কেন্দ্রগুলির ২০২১ সালের ফলাফল। ২০২১ সালের বিধানসভায় পাথরপ্রতিমা কেন্দ্রটি থেকে সমীর কুমার জানা তৃণমূলের কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জয়ী হন। কুলপি, রায়দিঘি, মন্দির বাজার এই তিনটি কেন্দ্রেই যথাক্রমে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জগরঞ্জন হালদার, অলক জলদাতা এবং জয়দেব হালদার ব্যাপক ভোটে জয়ী হন। মগরাহাট পশ্চিম কেন্দ্রটিতে গিয়াসউদ্দিন মোল্লা তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ৪৬ হাজার ৯৪১ ভোটে জয়যুক্ত হন। বর্তমানে এই লোকসভা কেন্দ্রটিতে ভারতীয় জনতা পার্টি এবং তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যেই মূল টক্কর। বর্তমান সময়ের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে সিপিআইএমের সহ অন্যান্য বামপন্থী দলগুলি।

ভোটযুদ্ধ খবর

Latest News

হাসপাতালে এসে ‘প্রেম রোগে’ আক্রান্ত বৃদ্ধ, লেডি-ডাক্তারকে লিখলেন লাভ লেটার ‘ওয়াহ, ওয়াহ’, ‘পক্ষপাতিত্বের জন্য’ ঠোঁটে আঙুল দিয়ে স্পিকারকে কটাক্ষ অভিষেকের উত্তমের শেষ ইচ্ছে পূরণ করেননি মহানায়িকা! সুচিত্রার কাছে কী চেয়েছিলেন তিনি? ‘বঞ্চিত’ নয় বাংলা, বাজেটে কোটি-কোটি টাকা পেল কলকাতার বিভিন্ন সংস্থা- রইল তালিকা রাজ্যপালের মানহানির প্রমাণ কোথায়? প্রশ্ন মমতার আইনজীবীর বিচ্ছেদের ঘোষণার পরেও নাতাশার সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে হার্দিকের! কী লিখলেন? কাশ্মীরের গ্রামে বন্ধুদের নিয়ে, সারা যেন পাহাড়ি কন্যে...! ক্ষমা করে দিন, মমতার ছবি বুকে নিয়ে পাড়ায় পাড়ায় ঘুরছেন TMC নেতা, দিদির নির্দেশ! যেন অকাল হোলি! দোলের মতো করেই হয় রাধিকা-অনন্তের গায়ে হলুদ 'সূর্য' দেখেই বিক্রমকে ভালোবাসায় ভরে দিল আট থেকে আশি

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.