বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > Punjab Assembly Election 2022: কংগ্রেসের তারকা প্রচারক তালিকা থেকে বাদ পড়ার পর মুখ খুললেন মণীশ
মণীশ তিওয়ারি। ফাইল ছবি। সৌজন্য- পিটিআই (PTI)

Punjab Assembly Election 2022: কংগ্রেসের তারকা প্রচারক তালিকা থেকে বাদ পড়ার পর মুখ খুললেন মণীশ

  • তবে স্টার প্রচারকজদের তালিকা থেকে মণীশ তিওয়ারির বাদ পড়া নিয়ে, আলোচনা আরও একটি দিক থেকে আগুনে ঘি ঢেলেছে। উল্লেখ্য, পঞ্জাবে ৪০ শতাংশ হিন্দু ভোট রয়েছে। সেখানে পঞ্জাবে মণীশের মতো হিন্দু নেতার তারকা প্রচারকের তালিকা থেকে বাদ পড়া নিয়ে রীতিমতো চর্চা শুরু হয়েছে।

পঞ্জাব কংগ্রেসে মসনদ ধরে রাখতে কোমর বেঁধে প্রচারে নামার প্রস্তুতিতে রয়েছে কংগ্রেস। এদিকে, দলের তরফে জি-২৩ তারকা প্রচারকদের যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে তাতে নাম নেই দলের হেভিওয়েট তথা আনন্দপুর সাহিবের সাংসদ মণীশ তিওয়ারির। বিষয়টি নিয়ে রাজনৈতিক ময়দানে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। একদিকে যখন সুনীল জাখরদের মতো নেতাদের হাত ধরে বারবার উঠে আসছে পঞ্জাব কংগ্রেসের আন্দরমহলের ফাটলের চেহারা, তখন মণীশের এই তারকা প্রচারক তালিকা থেকে বাদ পড়ার ঘটনা নিয়ে বেশ আলোচনা শুরু হয়েছে।

গোটা বিষয়টি নিয়ে টুইটারে বক্তব্য রেখেছেন কংগ্রেস সাংসদ মণীশ তিওয়ারি। তিনি লেখেন, 'যদি এটা অন্যভাবে হত, তাহলে আমি সুখদায়কভাবে আশ্চর্য হতাম। এর কারও কোনও রাজকীয় রহস্য নয়।' উল্লেখ্য, ভোটমুখী পঞ্জাবে ভোট গ্রহণের জন্য আর বাকি রয়েছে হাতে গোনা কয়েকটি দিন। তার মাঝে কংগ্রেসের হেভিওয়েট প্রার্থীর থেকে এমন বক্তব্য আসতে শুরু করায় বিরোধী শিবিরে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। উল্লেখ্য, ভোটের আগে ইতিমধ্যেই আরপিএন সিংয়ের মতো তাবড় কংগ্রেস নেতা বিজেপিতে যোগ দিতেই তা জাতীয় স্তরের আলোচনায় উঠে আসে। এরপর মণীশ তিওয়ারির মতো দাপুটে কংগ্রেস নেতার তরফে টুইট পোস্ট আসতেই তা নিয়ে জোর আলোচনা শুরু হয়। উল্লেখ্য, তৃণমূল নেতা অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের এক টুইটের সাপেক্ষে মণীশ তিওয়ারি জবাবি টুইটে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন। অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের টুইটে লেখা ছিল, ' পঞ্জাব কংগ্রেসের খুবই খারাপ হাল। কারণ ওরা একজন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা,পঞ্জাবের সাংসদ ও প্রাক্তন মন্ত্রী মণীশ তিওয়ারিকে পঞ্জাবের স্টার প্রচারকের তালিকা থেকে বাদ দিয়ে দিয়েছে। এত ছোট মানসিকতার পদক্ষেপ কখনওই কংগ্রেসকে জিততে সাহায্য করবে না।' অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের এই বক্তব্যের প্রেক্ষিতেই মণীশ দিয়েছেন পাল্টা জবাব।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মণীশ তিওয়ারি বলেন, ‘আমার নাম সেখানেই নেই তাতে আমি খুব একটা অবাক নই। থাকলেই অবাক হতাম। সকলেই জানেন কারণা কী।’ একই সঙ্গে মণীশ বলেছেন, হিন্দু বা শিখ ইস্যু পঞ্জাবে কোনও ফ্যাক্টর নয়, আর তা থাকলে তিনি আনন্দপুর সাহিব থেকে সাংসদ হতে পারতেন না।

উল্লেখ্য, শুক্রবারই দলের স্টার প্রচারকদের তালিকা প্রকাশ করেছে কংগ্রেস। সেখানে অম্বিকা সোনি, মণীশ তিওয়ারির মতো উত্তর ভারতের তাবড় নেতা নেত্রীদের নাম বাদ পড়েছে। এমনকি গুলাম নবি আজাদের মতো জি -২৩ এর উজ্জ্বল মুখও বাদ পড়েছেন এই তালিকা থেকে। সেই জায়গায়, কুমারী শৈলজা, দিবেন্দর হুদা, ভূপিন্দর হুদা, রণদীপ সুরজেওয়ালারা তারকা প্রচারকের তালিকায় জায়গা পেয়েছেন। তবে স্টার প্রচারকজদের তালিকা থেকে মণীশ তিওয়ারির বাদ পড়া নিয়ে, আলোচনা আরও একটি দিক থেকে আগুনে ঘি ঢেলেছে। উল্লেখ্য, পঞ্জাবে ৪০ শতাংশ হিন্দু ভোট রয়েছে। সেখানে পঞ্জাবে মণীশের মতো হিন্দু নেতার তারকা প্রচারকের তালিকা থেকে বাদ পড়া নিয়ে রীতিমতো চর্চা শুরু হয়েছে। এর আগে, পঞ্জাব কংগ্রেসের হিন্দু নেতা সুনীল জাখর দাবি করেন, তিনি হিন্দু হওয়াতেই সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর দৌড় থেকে বাদ পড়েন, যেখানে তাঁর সমর্থনে দলের ৪২ জন বিধায় ছিলেন। এই জায়গা থেকে ভোটমুখী পঞ্জাবে বারবার শিরোনাম কাড়ছে কংগ্রেস।

বন্ধ করুন