বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > অনুব্রতর গড়ে ভাঙন, দল ছাড়লেন আলি মোর্তাজা খান
দল ছাড়লেন আলি মোর্তাজা খান (ফাইল)
দল ছাড়লেন আলি মোর্তাজা খান (ফাইল)

অনুব্রতর গড়ে ভাঙন, দল ছাড়লেন আলি মোর্তাজা খান

  • 'ভয়ঙ্কর খেলা হবে' বলে বার বারই সরব হয়েছেন বীরভূমের অনুব্রত মণ্ডল।কিন্ত এবার কার্যত খেলা জমে উঠেছে বীরভূম জেলা তৃণমূলেরই অন্দরে। এবার একেবারে ভোটের মুখে দল ছাড়লেন দলেরই জেলা সহ সভাপতি আলি মোর্তাজা খান। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে টিকিট না পেয়েই গোঁসা হয়েছিল তাঁর। তার পরিণতিতেই এই দলত্যাগ।

সংকট যেন পিছু ছাড়ছেনা তৃণমূলকে। এবার ভোটের মুখে বড় ভাঙন বীরভূম জেলা তৃণমূলে। দলের বীরভূম জেলা সহ সভাপতি আলি মোর্তাজা খান আচমকাই দল ছাড়লেন রবিবার। এরপর তাঁর অনুগামীদের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। অনুগামীদের একাংশ দলে থেকেও আদৌ কতটা কাজ করবেন তা নিয়েও সংশয় দেখা দিয়েছে। দলের অন্দরমহল সূত্রে খবর সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়ে তৃণমূলের প্রার্থীপদ থেকে সরে যেতে বাধ্য হয়েছেন মুরারইয়ের আবদুর রহমান। এরপরই দলের অন্দরে জল্পনা ছড়িয়েছিল, দলের জেলা সহ সভাপতি আলি মোর্তাজা খান প্রার্থী হতে পারেন। হয়তো আশায় বুক বেঁধেছিলেন তিনিও।

কিন্ত সব আশায় কার্যত জল ঢেলে দেন তৃণমূলের রাজ্য নেতৃত্ব। মুরারইয়ের প্রার্থী করা হয়েছে মোশারফ হোসেনকে। আর এরপরই অনুগামীদের সঙ্গে বৈঠক করে দল ছাড়ার কথা ঘোষণা করেন আলি মোর্তাজা খান। মূলত টিকিট না পেয়েই গোঁসা হয় তাঁর। এর জেরেই দলের সঙ্গ ত্যাগ করার কথা ঘোষণা করেন তিনি। এমনটাই মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের। তবে শুধু দলত্যাগ করেই থেমে থাকেননি আলি মোর্তাজা খান। এবার একেবারে নির্দল প্রার্থী হিসাবে ভোটে লড়ার ব্যাপারেও চিন্তাভাবনা করছেন তিনি। তাতে তৃণমূলের জেলা নেতৃত্বের দুশ্চিন্তা আরও বেড়েছে।

এদিকে গত বিধানসভাতেও কংগ্রেসের টিকিটে লড়েছিলেন আলি মোর্তাজা খান। সেই সময় মাত্র ২৮০ ভোটে তৃণমূল প্রার্থীর কাছে হেরেছিলেন তিনি। পরে তিনি তৃণমূলে যোগ দেন। দক্ষ সংগঠক হিসাবেও তিনি এলাকায় পরিচিত। তৃণমূলের বড় ভরসা ছিলেন তিনি। কিন্ত তিনিও এবার তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন। সেক্ষেত্রে ভোটের মুখে ড্যামেজ কন্ট্রোলে তৃণমূল কোন পদক্ষেপ নেয় সেদিকেই নজর রাজনৈতিক মহলের। 

বন্ধ করুন