বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > নির্বাচনের মুখে রণক্ষেত্র ইলামবাজার, মারধর–গাড়ি ভাঙচুর, তদন্তে নামল পুলিশ
তৃণমূল ও বিজেপি–র পতাকা। ফাইল ছবি
তৃণমূল ও বিজেপি–র পতাকা। ফাইল ছবি

নির্বাচনের মুখে রণক্ষেত্র ইলামবাজার, মারধর–গাড়ি ভাঙচুর, তদন্তে নামল পুলিশ

  • মারধর–গাড়ি ভাঙচুরকে কেন্দ্র করে জোর শোরগোল পড়ে গেল।

নির্বাচনী আবহে ফের তপ্ত হয়ে উঠল ইলামবাজার। তৃণমূল কংগ্রেস–বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল এই এলাকা। মারধর–গাড়ি ভাঙচুরকে কেন্দ্র করে জোর শোরগোল পড়ে গেল। এদিন বীরভূমে পা রেখেছিলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা। আর সেদিনই ব্যাপক হামলার মুখে পড়়লেন বিজেপি কর্মী–সমর্থকরা বলে অভিযোগ। তারই প্রতিবাদে থানা ঘেরাও করে চলল বিক্ষোভ।

নির্বাচনের আগে এই পরিস্থিতিতে চাপা উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। আগামী ২৯ এপ্রিল, অষ্টম দফায় ভোট বোলপুর বিধানসভা কেন্দ্রে। তাই ইলামবাজারের ঘুড়িষা গ্রামে প্রচার কর্মসূচি নিয়েছিল বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়। অভিযোগ, প্রচার শুরু আগেই বিজেপির কয়েকটি গাড়িতে ভাঙচুর করা হয়। তারপর আক্রমণ নেমে আসে দলের কর্মী–সমর্থকদের উপর। দু’‌পক্ষের মধ্যে বেধড়ক মারধর শুরু হয়ে যায়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই অশান্তি ছড়ায় এলাকায়। ইলামবাজার থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি কর্মী–সমর্থকরা।

এই ঘটনায় বিজেপির দাবি, প্রচারে ব্যস্ত প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়। জেলায় এসেছেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা। তখন ভয় দেখানোর জন্যই মারধর করেছে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ভাঙচুর করা হয়েছে প্রচার গাড়িও। যদিও এইসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাদের পাল্টা দাবি, ‘‌এটা বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। আমরা কোনওভাবেই জড়িত নই। মিথ্যা বদনাম করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ানোর চেষ্টা চলছে'।’‌

বন্ধ করুন