বাংলা নিউজ > ভোটের লড়াই > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > বিজেপি–র ফেক ভিডিও, ভুয়ো খবরের রাজনীতির নেপথ্যে ‘‌ভাইয়া’‌ অমিত শাহ, অভিযোগ মমতার
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

বিজেপি–র ফেক ভিডিও, ভুয়ো খবরের রাজনীতির নেপথ্যে ‘‌ভাইয়া’‌ অমিত শাহ, অভিযোগ মমতার

  • এদিনের সাক্ষাৎকারে মমতা নিজেই স্বীকার করে নেন যে তিনি সত্যিই ‘‌স্ট্রিট ফাইটার’‌। এবং তিনিও চান যে নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হোক।

ভোটের মুখে সরগরম বঙ্গ রাজনীতি। মূল দুই প্রতিদ্বন্দ্বী রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল ও বিজেপি। রাজ্য নেতৃত্ব তো বটেই অমিত শাহ, জে পি নড্ডারাও প্রতি মাসে পশ্চিমবঙ্গে এসে নিজেদের শক্তি প্রদর্শন ও তৃণমূলকে আক্রমণ করে যাচ্ছেন। এমন সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে ‘‌বন্ধু’‌, ‘‌ভাইয়া’‌ বলে সম্বোধন করে তাঁকে পাল্টা আক্রমণ করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর গোটাটাই হল এক সর্বভারতীয় সংবাদ চ্যানেলের সাক্ষাৎকারের সময়।

বুধবার ‌‘‌ইন্ডিয়া টুডে’‌–কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এক ঘটনার কথা তুলে ধরার সময় অমিত শাহকে ‘‌বন্ধু’‌, ‘‌দাদা’‌ বলে সম্বোধন করেন মমতা। তিনি বলছিলেন, ‘আমি কোথাও একটা পড়েছিলাম যেখানে আমার বন্ধু, আমার ‘‌ভাইয়া’‌ অমিত শাহ জানিয়েছিলেন, ‘‌কাউকে মিথ্যা প্রমাণ করার জন্য যা ব্যবস্থাপনা দরকার সব আছে আমাদের কাছে। আমাদের কাছে ১৫ লক্ষ হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ রয়েছে। আমাদের যা রটানোর তা সেখানেই রটিয়ে দিতে পারি।’‌

সেই প্রসঙ্গে টেনেই মুখ্যমন্ত্রী এদিন অভিযোগ করে বলেন, ‘‌তার মানে প্রতিদিন সকালেই এ সব (‌১৫ লক্ষ হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ)‌ ব্যবহার করে তাঁরা (‌বিজেপি)‌ মিথ্যা খবর, ভুয়ো ভিডিও ছড়াতে থাকে।’‌ কৃষক বিক্ষোভের সমর্থনকারী মমতার অভিযোগ, ‘‌প্রতিবাদী কৃষকদের ভাবমূর্তিও পাল্টে দিচ্ছে বিজেপি–র তৈরি করা ভুয়ো ভিডিও, মিথ্যা খবর।’‌

তৃণমূল ক্ষমতায় আসার অনেক আগেই ‘‌স্ট্রিট ফাইটার’‌ উপাধি পেয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের সাক্ষাৎকারে মমতা নিজেই স্বীকার করে নেন যে তিনি সত্যিই ‘‌স্ট্রিট ফাইটার’‌। এবং তিনিও চান যে নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হোক। তাঁর কথায়, ‘‌আমার মনে হয়, যে কোনও নির্বাচন শান্তিপূর্ণ এবং অবাধ হওয়া উচিত। কারও মনে যাতে কোনও ভয় না থাকে। গণতান্ত্রিকভাবেই ভোট হওয়া দরকার। নির্বাচন কমিশন থেকে যে কোনও কেন্দ্রীয় সংস্থার উচিত নিরপেক্ষভাবে কাজ করা।’‌

মমতা এদিন অভিযোগ করেন বলেন, ‘‌বিজেপি খুনখারাপি আর হিংসার রাজনীতি করছে।’‌ তার নিন্দাও এদিন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এইকসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নাম না করে তাঁর কটাক্ষের সুরে প্রশ্ন, ‘‌এই দেশ কি শুধু একজনেরই, নাকি সকলের?‌’‌

বন্ধ করুন