বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > ২০১১ সালে তো নিজেই ৭ দফায় ভোট চেয়েছিলেন মমতা, আজ অন্য কথা কেন: শমীক ভট্টাচার্য
শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে স্বপন দাশগুপ্ত ও শমীক ভট্টাচার্য 
শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে স্বপন দাশগুপ্ত ও শমীক ভট্টাচার্য 

২০১১ সালে তো নিজেই ৭ দফায় ভোট চেয়েছিলেন মমতা, আজ অন্য কথা কেন: শমীক ভট্টাচার্য

  • মমতাকে তাঁর কটাক্ষ, ‘২০১১ সালের নির্বাচনের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা রাজ্য ঘুরে ঘুরে ৭ – ৮ দফায় ভোটগ্রহণ চেয়েছিলেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে ৮ দফায় ভোটগ্রহণ ঘোষণা করায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষোভকে কটাক্ষ করল বিজেপি। শুক্রবার সন্ধ্যায় বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘২০১১ সালে গোটা রাজ্য ঘুরে ৭ দফায় নির্বাচন চেয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখন তাহলে তার বিরোধিতা কেন করছেন তিনি।’

এদিন শমীকবাবু বলেন, ‘বিহারের মতো রাজ্যেও ৩ দফায় ভোট হয়। সেখানে ৮ দফায় ভোট হওয়ায় দেশের সামনে মাথা হেঁট হয়ে যায় বাঙালির। গত ১০ বছরে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের পরিস্থিতির এতটুকু উন্নতি করতে পারেননি। বরং দমবন্ধকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে রাজ্যে। লোকসভা নির্বাচনে যেখানে অবাধে ভোট হয়েছিল সেখানে বিজেপি জিতেছে’।

মমতাকে তাঁর কটাক্ষ, ‘২০১১ সালের নির্বাচনের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা রাজ্য ঘুরে ঘুরে ৭ – ৮ দফায় ভোটগ্রহণ চেয়েছিলেন। তখন তাঁর দাবি ছিল, নইলে সিপিএমের সন্ত্রাসমুক্ত নির্বাচন সম্ভব নয়। আজ তিনিই ৮ দফার নির্বাচনের বিরোধিতা করছে’।

শমীকবাবুর দাবি, ‘২০১১ সালের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গে কোথাও অবাধ নির্বাচন হয়নি। মুখ্যমন্ত্রী জাতীয় নির্বাচন কমিশনকে ওনার রাজ্য নির্বাচন কমিশন ভেবেছেন’।

এদিন রাজ্যের নির্বাচনী নির্ঘণ্ট ঘোষণা হওয়ার পর কালীঘাটে নিজের বাসভবনে পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোট করানোর বিরোধিতা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, পশ্চিমবঙ্গের মানুষের অধিকারের ব্যাপারে চিন্তা করা উচিত ছিল কমিশনের।

 

বন্ধ করুন