বাংলা নিউজ > ভোটের লড়াই > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > করোনার টিকাকরণ মিটলেই নাগরিকত্ব পাবেন মতুয়ারা, ঠাকুরনগরে বললেন শাহ
বৃহস্পতিবার ঠাকুরনগরে অমিত শাহ। 
বৃহস্পতিবার ঠাকুরনগরে অমিত শাহ। 

করোনার টিকাকরণ মিটলেই নাগরিকত্ব পাবেন মতুয়ারা, ঠাকুরনগরে বললেন শাহ

  • নাগরিকত্ব নিয়ে পুরনো আশ্বাস ফের শুনিয়ে শাহ বলেন, ‘মমতা দিদি, আমরা যা বলি তাই করি। আমি আজ আপনাদের কথা দিয়ে যাচ্ছি, যেদিন টিকাকরণের কাজ শেষ হবে, করোনা থেকে আমরা মুক্তি পাবো, ভারতীয় জনতা পার্টি আপনাদের সবাইকে নাগরিকত্ব দেবে।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে ঠাকুরনগরে এসে মতুয়াদের সামনে গাজর ঝুলিয়ে রেখে গেলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কথা দিলেন, করোনার টিকাকরণ শেষ হলেই CAA-র অধীনে মতুয়াদের নাগরিকত্ব দেবে ভারতীয় জনতা পার্টি। সঙ্গে তিনি বলেন, ‘CAA নিয়ে ভুল বোঝানো হচ্ছে মুসলিমদের। এই আইনে কারও নাগরিকত্ব যাবে না।’

CAA নিয়ে এদিন নতুন কোনও কথা শোনাতে পারেননি শাহ। গত মাসে বোলপুরে যে কথা বলেছিলেন এদিন কার্যত তার পুনরাবৃত্তি করেন শাহ। জানান, করোনার টিকাকরণ শেষ হলেই শুরু হবে নাগরিকত্ব প্রদানের প্রক্রিয়া। 

এদিন শাহ বলেন, ‘২০১৮ সালে আমরা কথা দিয়েছিলাম, কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদী সরকার এলে আমরা নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করবো। যার ফলে মতুয়ারা নাগরিকত্ব পাবেন। তার পর ২০১৯-এ মতুয়ারা আমাদের ঝুলি পদ্মফুলে ভরে দিয়েছেন। মোদী সরকার তৈরি হওয়ার পর আমরা এক মুহূর্ত দেরি করিনি। ২০২০ সালেই আমরা নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাশ করিয়েছি’।

এর পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ শানান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, ‘মাঝে করোনা এসে গেল। মমতা দিদি শুরু করে দিলেন। বলতে থাকলেন, ওরা মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। কিছু হবে না। ওরা দেবে না। আর ওরা দিলেও আমরা দিতে দেব না। আমরা ওদের রুখবো। আমার শরীরে প্রাণ থাকতে হতে দেবো না’। 

নাগরিকত্ব নিয়ে পুরনো আশ্বাস ফের শুনিয়ে শাহ বলেন, ‘মমতা দিদি, আমরা যা বলি তাই করি। আমি আজ আপনাদের কথা দিয়ে যাচ্ছি, যেদিন টিকাকরণের কাজ শেষ হবে, করোনা থেকে আমরা মুক্তি পাবো, ভারতীয় জনতা পার্টি আপনাদের সবাইকে নাগরিকত্ব দেবে। দেশের সংসদে আইন পাশ হয়ে গিয়েছে। আপনি কী ভাবে রুখবেন? আর তাছাড়াও আপনি রোখার মতো অবস্থায় থাকবেন না। কারণ এপ্রিলের পরে তো আপনি মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন না। আমরা অনুপ্রবেশকারী ঢোকা বন্ধ করে শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিয়ে বুকে জড়িয়ে ধরবে’।

সঙ্গে বিরোধীদের বিরুদ্ধে CAA নিয়ে অপপ্রচারের অভিযোগ তোলেন শাহ। বলেন, ‘বাম-কংগ্রেস-তৃণমূলসহ বিরোধীরা সংখ্যালঘু ভাই বোনেদের উসকায়। বলে, তাদের নাগরিকত্ব চলে যাবে। আমি মুসলমান ভাই বোনদের বলতে চাই, CAA-তে কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার কোনও প্রস্তাবনা নেই। আপনার নাগরিকত্ব যাবে না। সেখানে মতুয়া ভাই – বোন – মায়েদের নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে’। 

বিধানসভা নির্বাচনের আগে মতুয়াদের নাগরিকত্ব ইস্যুতে সরগরম রাজ্য রাজনীতি। সংসদে আইন পাশ হওয়ার পর বছর ঘুরলেও এখনো কেন নাগরিকত্ব মিলল না তা নিয়ে সরব হয়েছেন মতুয়া সমাজের একাংশ। তৃণমূলের দাবি, মতুয়ারা ভারতের নাগরিক। তাদের আবার নতুন করে কী নাগরিকত্ব দেবে মোদী সরকার? 

 

বন্ধ করুন