বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > স্বপনের প্রার্থীপদ নিয়ে আসরে কংগ্রেস, রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের কাছে চাইল ব্যাখ্য
স্বপন দাশগুপ্ত। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
স্বপন দাশগুপ্ত। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

স্বপনের প্রার্থীপদ নিয়ে আসরে কংগ্রেস, রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের কাছে চাইল ব্যাখ্য

  • এবার পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে তুলনামূলকভাবে 'সুরক্ষিত' তারকেশ্বর আসন লড়ছেন স্বপন।

এবার স্বপন দাশগুপ্তের প্রার্থীপদ নিয়ে আসরে নামল কংগ্রেস। রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডুকে চিঠি লিখে কংগ্রেসের মুখ্য উইপ জয়রাম রমেশ জানালেন, নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আগে কোনও দলে যোগ দেননি বা সংসদের উচ্চকক্ষ থেকে ইস্তফা দেননি রাজ্যসভার মনোনীত সাংসদ। তা নিয়ে রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের ব্যাখ্যা চাইল কংগ্রেস।

চিঠিতে রমেশ বলেছেন, 'মনোনয়নের ছ'মাসের মধ্যে রাজ্যসভার যে মনোনীত সদস্য আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেন না এবং কোনও রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি না হয়েই (সংসদের উচ্চকক্ষের) সদস্য আছেন, তিনি কি ইস্তফা না দিয়ে কোনও লোকসভা বা বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করতে পারেন?' তিনি আরও বলেন, 'গত কয়েকদিনে এরকম কোনও ইস্তফার কথা আপনি ঘোষণা করেননি। আমার আর কিছু বলার নেই।'

এবার পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে তুলনামূলকভাবে 'সুরক্ষিত' তারকেশ্বর আসন লড়ছেন স্বপন। গত রবিবার আনুষ্ঠানিকভাবে নাম ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু সোমবার তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ মহুয়া মৈত্র অভিযোগ করেন, ভারতীয় সংবিধানের দশম তফসিল লঙ্ঘন করেছেন স্বপন। সেজন্য স্বপনের রাজ্যসভা সদস্যপদ খারিজের দাবি জানান মহুয়া।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের এপ্রিলে স্বপনকে রাজ্যসভায় মনোনীত করেছিলেন রাষ্ট্রপতি। সংবিধানের দশম তফসিল অনুযায়ী, সংবিধানের ৯৯ ধারা বা ১৮৮ ধারা মেনে শপথগ্রহণের ছ’মাসের পর কোনও মনোনীত সদস্য যদি কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেন, তাহলে তাঁর সদস্যপদ খারিজ হয়ে যাবে। সংবিধানের ৯৯ ধারা এবং ১৮৮ ধারা আইনপ্রণেতার শপথগ্রহণের বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

বন্ধ করুন