বাংলা নিউজ > ভোটের লড়াই > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > দলের রাশ মমতার হাতে নেই বলে টুইটার থেকে দলনেত্রীর ছবি সরালেন দীনেশ
শুক্রবার রাজ্যসভায় দীনেশ ত্রিবেদী। 
শুক্রবার রাজ্যসভায় দীনেশ ত্রিবেদী। 

দলের রাশ মমতার হাতে নেই বলে টুইটার থেকে দলনেত্রীর ছবি সরালেন দীনেশ

  • এদিন সংসদে নিজের ইস্তফা ঘোষণা করে দীনেশ ত্রিবেদী জানান, চুপ করে থাকতে থাকতে তাঁর দম বন্ধ আসছিল। মানুষের জন্য কাজ করতে পারছিলেন না তিনি।

তৃণমূলের রাজ্যসভার সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পরই টুইটার হ্যান্ডেল থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি সরালেন দীনেশ ত্রিবেদী। শুক্রবার রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে নিজের ইস্তফা ঘোষণা করেন তিনি। অধিবেশনকক্ষ থেকে বেরনোর কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রোফাইলের কভার ছবি বদলে ফেলেন তিনি। জানান, দলের রাশ আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে নেই। 

তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীর টুইটার হ্যান্ডেলের কভার ফটোতে ছিল তাঁর ও দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি শোভিত একটি গ্রাফিক্স। তাতে এক কোণায় ছিল তৃণমূলের প্রতীক। এদিন বিকেলে দেখা যায় তার জায়গায় রয়েছে স্বামী বিবেকানন্দের ছবি শোভিত একটি গ্রাফিক্স। পিছনে জাতীয় পতাকা। তাতে কোথাও তৃণমূলের নামগন্ধ নেই। 

এদিন সংসদে নিজের ইস্তফা ঘোষণা করে দীনেশ ত্রিবেদী জানান, চুপ করে থাকতে থাকতে তাঁর দম বন্ধ আসছিল। মানুষের জন্য কাজ করতে পারছিলেন না তিনি। পরে সংসদ থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, দলের রাশ কর্পোরেট সংস্থা আর অযোগ্য নেতৃত্বের হাতে চলে গিয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে আর দলের রাশ নেই। 

তিনি তৃণমূল ছেড়েছেন কি না তা অবশ্য স্পষ্ট করে কিছু জানাননি দীনেশ ত্রিবেদী। তবে এদিন টুইটারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি সরিয়ে দেওয়ার ঘটনায় স্পষ্ট, দলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছেন তিনি। অবশ্য দীনেশ ত্রিবেদীর আনুষ্ঠানিক ঘোষণার অপেক্ষা করেনি তৃণমূল। তার আগেই তাঁর বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন একের পর এক তৃণমূল নেতা। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘দলকে পিছন থেকে ছুরি মেরেছেন দীনেশ ত্রিবেদী।’

 

বন্ধ করুন