বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > চলতি সপ্তাহেই রাজ্যে আসছেন কমিশনের পর্যবেক্ষকরা
কোথায় গোলমাল হয়েছিল, কী ব্যবস্থা নিয়েছিল পুলিশ, তথ্য চাইল নির্বাচন কমিশন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
কোথায় গোলমাল হয়েছিল, কী ব্যবস্থা নিয়েছিল পুলিশ, তথ্য চাইল নির্বাচন কমিশন। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

চলতি সপ্তাহেই রাজ্যে আসছেন কমিশনের পর্যবেক্ষকরা

  • বুধবারের বৈঠকে পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষতার ব্যাপারে সতর্ক করেছে কমিশন। সঙ্গে তাদের নির্বাচনের কাজের বাইরে অন্য কোনও কাজে যুক্ত থাকতে বারণ করা হয়েছে।

নির্বাচন ঘোষণার প্রায় ১ সপ্তাহ পর পশ্চিমবঙ্গে আসতে চলেছেন কমিশনের পর্যবেক্ষকরা। ৬ অথবা ৭ মার্চ রাজ্যে আসছেন কমিশন নিযুক্ত ৪ পর্যবেক্ষক। বুধবার মুখ্য  নির্বাচনী আধিকারিকের সঙ্গে পর্যবেক্ষকদের বৈঠকের পর একথা জানানো হয়েছে। আসছেন সাধারণ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক। ২ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে ও মৃণালকান্তি দাস ও আয় – ব্যায় পর্যবেক্ষক মুরলিকুমার। 

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন প্রক্রিয়ার ওপর এবার কড়া নজরদারির ব্যবস্থা করেছে কমিশন। প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে নিয়োগ করা হয়েছে ২ জন করে সাধারণ পর্যবেক্ষক। এছাড়া জেলায় ১ জন করে পুলিশ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। রাজ্যের নির্বাচনে মোট পর্যবেক্ষকের সংখ্যা ৫০০ ছাড়াতে পারে বলে খবর কমিশন সূত্রে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকজন রাজ্যে এসে কাজও শুরু করে দিয়েছে। 

বুধবারের বৈঠকে পর্যবেক্ষকদের নিরপেক্ষতার ব্যাপারে সতর্ক করেছে কমিশন। সঙ্গে তাদের নির্বাচনের কাজের বাইরে অন্য কোনও কাজে যুক্ত থাকতে বারণ করা হয়েছে। অন্যথা হলে কমিশন বরখাস্ত করতে পারে বলেও সতর্ক করা হয়েছে তাঁদের। 

এবারের নির্বাচনে সেক্টর অফিসারদের ওপর নজরদারির ব্যবস্থা করেছে কমিশন। ১৫,০০০ সেক্টর অফিসারের গাড়িতে জিপিএস ট্র্যাকার বসানো হয়েছে। যাতে তাদের গতিবিধি সরাসরি দেখতে পাবেন কমিশনের কর্তারা। বিরোধীদের অভিযোগ, ভোটগ্রহণের দিন বহু ক্ষেত্রে কোথাও গোলমাল শুরু হওয়ার অনেক পরে পৌঁছন সেক্টর অফিসাররা। 

গত শুক্রবার রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করেছে কমিশন। ৮ দফা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলবে ২৭ মার্চ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত। ভোটগণনা ২ মে।

 

বন্ধ করুন