বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ, দলীয় কোন্দলের জের?
রায়গঞ্জে বিজেপির কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ (নিজস্ব চিত্র)
রায়গঞ্জে বিজেপির কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ (নিজস্ব চিত্র)

বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ, দলীয় কোন্দলের জের?

  • দিন কয়েক আগেই উত্তরদিনাজপুরে বিজেপির জেলা সভাপতি বদল হয়েছে। এবার রায়গঞ্জে বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন লাগানোর অভিযোগ। তৃণমূলের দাবি বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দলের জেরে এই আগুন। 

আগামী ২২ এপ্রিল ভোট উত্তর দিনাজপুরে। তার আগে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে বিজেপি ও তৃণমূল দুই শিবিরের মধ্য়ে উত্তেজনার পারদ চড়ছে ক্রমশ। জেলা সভাপতি বদলকে কেন্দ্র করে বিজেপির অন্দরেও দানা বেঁধেছে ক্ষোভ। এসবের মধ্যেই বৃহস্পতিবার রাতে রায়গঞ্জের কমলাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের পিরোজপুরে বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির নেতৃত্বের অভিযোগ গত কয়েকদিন ধরেই ফোনে ও সরাসরি বিজেপি কর্মীদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছিল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। এরপরই বৃহস্পতিবার রাতে নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। বিষয়টি জানাজানি হতেই শুক্রবার এলাকায় পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মীরা। কর্ণজোড়া ফাঁড়ি থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

 তবে এই ঘটনাকে ঘিরে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে উঠেছে। তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি উত্তরদিনাজপুরে বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দল চরমে উঠেছে। দলের জেলা সভাপতি বদলকে ঘিরেই কোন্দল শুরু হয়েছে বিজেপির অন্দরে। তার জেরেই নির্বাচনী কার্যালয়ে দলেরই অপর পক্ষ আগুন দিয়েছে। অন্যদিকে বিজেপির দাবি এলাকায় তৃণমূলের হার নিশ্চিত। সেকারণেই এখন অশান্তি পাকানোর চেষ্টা করছে। 

স্থানীয় বিজেপি নেতা গণেশ চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, ভোরবেলা জানতে পারি কার্যালয়টি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তৃণমূলের লোকজন গত কয়েকদিন ধরে বিজেপি কর্মীদের চমকাচ্ছে। ওরাই আমাদের কার্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান প্রশান্ত দাস বলেন, এখানে তৃণমূলের কোনও হাত নেই। এটা ওদের নিজেদের কোন্দল। সম্প্রতি ওদের জেলা সভাপতিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তারই ফলশ্রুতিতে বিজেপির লোকজনই তাদের কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে। 

 

আগামী ২২ এপ্রিল ভোট উত্তর দিনাজপুরে। তার আগে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে বিজেপি ও তৃণমূল দুই শিবিরের মধ্য়ে উত্তেজনার পারদ চড়ছে ক্রমশ। জেলা সভাপতি বদলকে কেন্দ্র করে বিজেপির অন্দরেও দানা বেঁধেছে ক্ষোভ। এসবের মধ্যেই বৃহস্পতিবার রাতে রায়গঞ্জের কমলাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের পিরোজপুরে বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির নেতৃত্বের অভিযোগ গত কয়েকদিন ধরেই ফোনে ও সরাসরি বিজেপি কর্মীদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছিল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। এরপরই বৃহস্পতিবার রাতে নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। বিষয়টি জানাজানি হতেই শুক্রবার এলাকায় পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মীরা। কর্ণজোড়া ফাঁড়ি থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

 তবে এই ঘটনাকে ঘিরে রাজনৈতিক চাপানউতোর তুঙ্গে উঠেছে। তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি উত্তরদিনাজপুরে বিজেপির গোষ্ঠীকোন্দল চরমে উঠেছে। দলের জেলা সভাপতি বদলকে ঘিরেই কোন্দল শুরু হয়েছে বিজেপির অন্দরে। তার জেরেই নির্বাচনী কার্যালয়ে দলেরই অপর পক্ষ আগুন দিয়েছে। অন্যদিকে বিজেপির দাবি এলাকায় তৃণমূলের হার নিশ্চিত। সেকারণেই এখন অশান্তি পাকানোর চেষ্টা করছে। স্থানীয় বিজেপি নেতা গণেশ চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, ভোরবেলা জানতে পারি কার্যালয়টি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তৃণমূলের লোকজন গত কয়েকদিন ধরে বিজেপি কর্মীদের চমকাচ্ছে। ওরাই আমাদের কার্যালয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান প্রশান্ত দাস বলেন, এখানে তৃণমূলের কোনও হাত নেই। এটা ওদের নিজেদের কোন্দল। সম্প্রতি ওদের জেলা সভাপতিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তারই ফলশ্রুতিতে বিজেপির লোকজনই তাদের কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে। 

|#+|

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন