বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > ‘‌কে দেশের মানুষের সুরক্ষাকে এভাবে কাঠগড়ায় তুলছে?’ পাল্টা প্রশ্ন ডেরেকের
তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন (PTI Photo) (PTI)
তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন (PTI Photo) (PTI)

‘‌কে দেশের মানুষের সুরক্ষাকে এভাবে কাঠগড়ায় তুলছে?’ পাল্টা প্রশ্ন ডেরেকের

  • এই অডিও ক্লিপ নিয়ে মোক্ষম দাওয়াই দিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন।

ভোট–পঞ্চমী সরগরম হয়ে উঠল বিজেপির ফাঁস করা অডিও ক্লিপ নিয়ে। বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য এই টেপ প্রকাশ করেছেন। সেই অডিও টেপে রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কন্ঠস্বর বলে তাঁর দাবি। সেটা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। কথোপকথন চলছিল শীতলকুচির কাণ্ডের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও পার্থপ্রতিম রায়ের মধ্যে। যদিও ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা ডিজিটাল। তবে এই অডিও ক্লিপ নিয়ে মোক্ষম দাওয়াই দিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’‌ব্রায়েন। তিনি শনিবার সাংবাদিক সম্মেলন থেকে প্রশ্ন তোলেন, ‘‌কোন এক্তিয়ারে মুখ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কথাবার্তা টেপ করতে পারে কেউ? মুখ্যমন্ত্রীর কথাবার্তাই যদি টেপ করা হয় তাহলে যে কোনও ব্যক্তির তথ্যের সুরক্ষা কোথায়?’‌

এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়। ডেরেক ও’‌ব্রায়েন এই সাংবাদিক সম্মেলন থেকেই প্রশ্ন তোলেন, ‘‌কে এই অডিও টেপ রেকর্ড করছে? কে দেশের মানুষের সুরক্ষাকে এভাবে কাঠগড়ায় তুলছে?’‌ সুখেন্দুশেখর বলেন, ‘‌যে কোনও মানুষেরই ফোন ট্যাপ করা হতে পারে। তাঁকে রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। আমরা লোকসভায়, রাজ্যসভায় একাধিকবার এই অভিযোগ তুলেছিলাম। তখন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী বলেছিলেন, কোনওভাবেই মন্ত্রীদের কথাবার্তা টেপ হয় না। তিনি যে বিবৃতি দিয়েছিলেন তা যে মিথ্যে কথা তা প্রমাণ হল।’‌ উল্লেখ্য, এই কাণ্ড নিয়ে সিআইডি তদন্তের কথা আজই জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদদের স্পষ্ট অভিযোগ, বাংলার নির্বাচনকে সামনে রেখে এগুলি করা হয়েছে। বাংলার মানুষই এই ঘটনার বিচার করুন। বিজেপির প্রকাশিত অডিও ক্লিপে মমতাকে বলতে শোনা গিয়েছে, অ্যারেস্ট করাব সবকটা সিআরপিএফকে। ডেড বডিগুলোকে এখন রেখে দাও। কালকে ডেড বডিগুলো নিয়ে র‍্যালি হবে। পরিবারগুলোকে বলবে কেউ ডেড বডি নেবে না। পুলিশ স্টেটমেন্ট নিতে গেলে নেবে না। ভালো করে এফআইআর করতে হবে ল’‌ইয়ার–এর সঙ্গে কনসাল্ট করে। যাতে কম্যান্ড জোন থেকে শুরু করে এসপি থেকে শুরু করে সব কটা ফাঁসে। এই অডিও ক্লিপের প্রেক্ষিতে ডেরেক অভিযোগ করেন, ‘‌ডোন্ট প্লে মাইন্ডগেম ইন বেঙ্গল।‌’‌

বন্ধ করুন