বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > গাজোল বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল - একনজরে সব তথ্য

এই তফসিলি জাতি কেন্দ্রে এবারের তৃণমূলের তরফে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বাসন্তী বর্মণ। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন চিন্ময়দেব বর্মণ। অন্যদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন সিপিআইএমের অরুণ বিশ্বাস।

মালদহ পশ্চিমবঙ্গের মালদহ বিভাগের একটি জেলা। ১৯৪৭ সালের ১৭ অগস্ট পুর্বতন মালদহ জেলার অংশবিশেষ নিয়ে মালদহ জেলা স্থাপিত হয়৷ জেলাটির জেলাসদর ইংরেজবাজার। মালদহ ও চাঁচল মহকুমা দু’‌টি নিয়ে মালদহ জেলা গঠিত। জেলাটির অবস্থান পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতা থেকে ৩৪৭ কিলোমিটার উত্তরে৷ গাজোল বিধানসভা কেন্দ্রটি অতীতে তফসিলি উপজাতি সংরক্ষিত ছিল। বর্তমানে এটি তফসিলি জাতি সংরক্ষিত আসন। ডিলিমিটেশন কমিশনের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ৪৪ গাজোল বিধানসভা কেন্দ্রটি ৭ মালদহ উত্তর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।

১৯৫২ সালের প্রথম নির্বাচনে গাজোলে জয়ী হন সিপিআই প্রার্থী। পরের দু’টি বিধানসভা ভোটে আসনটির পৃথক অস্তিত্ব ছিল না। ১৯৬৭ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ১৩টি বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে কংগ্রেস চারবার এবং সিপিএম ন’বার ক্ষমতা দখল করে। এই কেন্দ্রের বিধায়ক দিপালী বিশ্বাস ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে সিপিএমের প্রতীকে জেতার পর ২০১৮ সালে যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে। ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর তিনি ফের শিবির বদল করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে এই কেন্দ্রের সিপিএম, তৃণমূল, বিজেপি প্রার্থী ভোট পেয়েছিলেন যথাক্রমে ৪৩.৩৪ শতাংশ, ৩২.৯৫ শতাংশ ও ১৪.৫১ শতাংশ। তবে ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে বিধানসভাভিত্তিক ফলাফলে বিজেপি, তৃণমূল, কংগ্রেস এবং সিপিএম প্রার্থীর প্রাপ্ত ভোটের হার যথাক্রমে ৫১.৩৮ শতাংশ, ৩১.৮৫ শতাংশ, ৮.৮ শতাংশ এবং ২.৮১ শতাংশ। ২০২১ সালে প্রকাশিত নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে গাজোল বিধানসভা কেন্দ্রে বুথের সংখ্যা ছিল ২৪৮টি। কোভিড পরিস্থিতির কারণে এখন তা বেড়ে হচ্ছে ৩৮২টি। এই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হবে ২০২১ সালের ২৬ এপ্রিল

বন্ধ করুন