বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > গোয়ালপোখর(পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা)2021 LIVE:জয়ী তৃণমূলের গোলাম রব্বানি
২২ এপ্রিল গোয়ালপোখরে ভোটগ্রহণ। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
২২ এপ্রিল গোয়ালপোখরে ভোটগ্রহণ। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

গোয়ালপোখর(পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা)2021 LIVE:জয়ী তৃণমূলের গোলাম রব্বানি

  • ২২ এপ্রিল গোয়ালপোখরে ভোটগ্রহণ।

গোয়ালপোখর বিধানসভা নির্বাচনে ১,০৫,০৮৩ ভোট পেয়ে জয়ী তৃণমূলের গোলাম রব্বানি। অন্যদিকে বিজেপি প্রার্থী গুলাম সরওয়ার ৩২,০২৯টি ভোট পেয়েছেন।

গোয়ালপোখর বিধানসভা কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী গোলাম রব্বানি। ১৮ হাজার ভোটে পিছিয়ে বিজেপির গুলাম সরওয়ার।

এই কেন্দ্রে এবারের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হলেন গোলাম রব্বানি। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন গুলাম সরওয়ার। অন্যদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন কংগ্রেসের মহম্মদ নাসিম আহসান।

গোয়ালপোখর উত্তর দিনাজপুর জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র। গোয়ালপোখর বিধানসভা কেন্দ্রটি গোয়ালপোখর সিডি ব্লকের অন্তর্গত। গোয়ালপোখর বিধানসভা কেন্দ্রটি রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।

১৭৬৫ সালে বাংলার দেওয়ানি ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির উপর দায়িত্ব দেওয়ার পর থেকে দিনাজপুর ব্রিটিশ শাসনের আওতাভুক্ত হয়েছিল৷ ব্রিটিশ শাসনের প্রথম দিকে মালদহের বামনগোলার মদনাবতিতে প্রথম নীল কারখানা স্থাপিত হয়েছিল৷ ১৭৯৮ সালে উইলিয়াম কেরি কলকাতার পর প্রথম এই অঞ্চলে বাংলায় বই ছাপানো শুরু করেছিলেন। কিন্তু ১৭৯৯ সালে নীল কারখানাটি বন্ধ হয়ে গিয়েছিলেন৷ অষ্টাদশ শতকের মধ্যেই সন্নাসী ফকিরদের জমি জায়গা দিয়ে দিনাজপুরে বিভিন্ন স্থানে বসতি করে দেওয়া হয়েছিল৷ পরে তাঁরাই আবার সাধারণ মানুষর উপর লুঠতরাজ শুরু করলে ইষ্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির তত্ত্বাবধানে তার অবসান ঘটে৷ ১৮৫৭ সালে সিপাহী বিদ্রোহ বা নবজাগরণের সময় এই জেলা নিজ স্থান অক্ষুণ্ণ রেখেছিল৷

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী গোলাম রব্বানি জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৬৪ হাজার ৮৬৯৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী আফজাল হোসেন। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৫৭ হাজার ১২১৷ কংগ্রেস প্রার্থী মহম্মদ গোলাম রব্বানি তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস প্রার্থী আফজাল হোসেনকে ৭ হাজার ৭৪৮ ভোটে পরাজিত করেছিলেন। ২০১১ সালের নির্বাচনে কংগ্রেসের গোলাম রব্বানি তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফরওয়ার্ড ব্লকের সইফুর রহমানকে পরাজিত করেছিলেন।

কংগ্রেসের বিধায়ক দীপা দাশমুন্সি পদত্যাগ করলে গোয়ালপোখর বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হয়। রায়গঞ্জের বিধায়ক হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। সেকারণে ফরওয়ার্ড ব্লকের আলি ইমরান রামজ কংগ্রেসের গোলাম রব্বানিকে পরাজিত করেছিলেন। প্রায় ১৫ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছিলেন তিনি।

২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সি ফরওয়ার্ড ব্লকের হাফিজ আলম সাইরানিকে এই আসনে পরাজিত করেছিলেন। ২০০১ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকের হাফিজ আলম সাইরানি কংগ্রেসের দীপা দাসমুন্সি ও ১৯৯৬ সালে কংগ্রেসের এমডি. মোস্তফাকে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৯১ ও ১৯৮৭ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকের এমডি. রমজান আলি কংগ্রেসের নিজামুদ্দিন আহমেদকে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৮২ ও ১৯৭৭ সালে বিজেপি ও নির্দলের পুর্নমাল চাঁদ মহেশ্বরীকে পরাজিত করেছিলেন রমজান আলি। ১৯৭২ ও ১৯৭১ সালে কংগ্রেসের শেখ শরফাত হোসেন এই আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৬৯ ও ১৯৬৭ সালে পিএসপি’‌র মোহাম্মদ সলিমুদ্দিন এই আসনে জয়লাভ করেন। ১৯৬২ সালে পিএসপি'র মহম্মদ হায়াত আলি জিতেছিলেন। তারও আগে ১৯৫৭ সালে কংগ্রেসের মুজাফ্ফর হোসেন এই আসনে জয়ী হয়েছিলেন। এর আগে গোয়ালপোখর কেন্দ্র ছিল না।

বন্ধ করুন