বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > ঝাড়খণ্ডে পেরেছি, পশ্চিমবঙ্গকে পারতে হবে, তৃণমূলের হয়ে প্রচারে হেমন্ত সোরেন
ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন।  (HT_PRINT)
ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন।  (HT_PRINT)

ঝাড়খণ্ডে পেরেছি, পশ্চিমবঙ্গকে পারতে হবে, তৃণমূলের হয়ে প্রচারে হেমন্ত সোরেন

  • এদিন পুরুলিয়ার বান্দোয়ানে তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে জনসভায় হেমন্ত সোরেন বলেন, লোকসভা নির্বাচনে ভাল ফল করা মানেই বিধানসভায় সাফল্যের গ্যারান্টি নয়।

গত মাসেই পশ্চিমবঙ্গে এসে প্রচার করায় তাঁর বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার জঙ্গলমহলের ২ জেলার আদিবাসী অধ্যুষিত একাধিক আসনে তৃণমূলের হয়ে প্রচারে করে গেলেন সেই হেমন্ত সোরেন। ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী তথা ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার নেতা হেমন্ত সোরেন এদিন বলেন, আদিবাসীদের ভাগ করার চেষ্টা চালাচ্ছে বিজেপি। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

ভোট ঘোষণার আগে পশ্চিমবঙ্গে প্রতিদ্বন্দিতা করার পরিকল্পনা করেছিল JMM. সেই মতো এরাজ্যে প্রচারেও আসেন দলের সুপ্রিমো হেমন্ত সোরেন। বাঁকুড়া – পুরুলিয়ার একাংশে ভাল প্রভাব রয়েছে JMM-এর। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তৃণমূলকে সমর্থনের সিদ্ধান্ত নেয় তারা।

এদিন পুরুলিয়ার বান্দোয়ানে তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে জনসভায় হেমন্ত সোরেন বলেন, লোকসভা নির্বাচনে ভাল ফল করা মানেই বিধানসভায় সাফল্যের গ্যারান্টি নয়। গত লোকসভা নির্বাচনে বাঁকুড়া – পুরুলিয়া – ঝাড়গ্রামের জঙ্গলমহল থেকে ধুয়ে মুছে গিয়েছে তৃণমূল। সমস্ত আসন দখল করেছে বিজেপি।

এদিন হেমন্ত সোরেন বলেন, ‘গত লোকসভা নির্বাচনে ঝাড়খণ্ডের ১৪টি লোকসভা আসনের ১২টিতে জিতেছিল বিজেপি। তার কয়েক মাসের মধ্যে বিধানসভা নির্বাচনে আমরা বিশ্বের বৃহত্তম রাজনৈতিক দলকে ধরাশায়ী করি। আমরা করে দেখিয়েছি। এবার পশ্চিমবঙ্গকে করে দেখাতে হবে।’ গত ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস ও রাজদ-এর সঙ্গে জোট করেছিল জেএমএম। এদিন বিজেপিকে সাম্প্রদায়িক ও বিভাজন সৃষ্টিকারী শক্তি বলে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী। বিজেপিকে ‘জুনিয়র ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি’ বলেও কটাক্ষ করেন তিনি।

 

বন্ধ করুন