বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > যাদবপুর (পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা) 2021: ধূলিসাৎ বামদুর্গ, ৩৮,৮৬৯ ভোটে হার সুজনের

ভোটের ফলাফল আপডেট :

১) ৩৮,৮৬৯ ভোটে জিতলেন তৃৃণমূল প্রার্থী দেবব্রত মজুমদার। ভেঙে পড়ল বাম দুর্গ।

২) যাদবপুর কেন্দ্রে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মলয় মজুমদার। হারিয়ে দিয়েছেন বাম প্রার্থী সুজন চক্রবর্তীকে। তবে নির্বাচন কমিশনের তরফে এখনও সরকারিভাবে জয় ঘোষণা করা হয়নি।

৩) যাদবপুর বিধানসভা কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মলয় মজুমদার। পিছিয়ে বাম প্রার্থী ডঃ সুজন চক্রবর্তী।

একনজরে যাদবপুর কেন্দ্র

যাদবপুর বিধানসভায় এবারের তৃণমূলের প্রার্থী হলেন মলয় মজুমদার।এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন রিঙ্কু নস্কর।অন্য দিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন সিপিআইএমের ডঃ সুজন চক্রবর্তী।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা প্রেসিডেন্সি বিভাগের অন্তর্ভুক্ত জেলা। জেলার সদর আলিপুরে। এই জেলার উত্তরদিকে কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব দিকে বাংলাদেশ, পশ্চিম দিকে হুগলি নদী ও দক্ষিণ দিকে বঙ্গোপসাগর রয়েছে। যাদবপুর বিধানসভা কেন্দ্র হল দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র। কলকাতা পুরনিগমের ৯৬, ৯৯, ১০১, ১০২, ১০৩, ১০৪, ১০৫, ১০৬, ১০৯ ও ১১০ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে যাদবপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি গঠিত হয়েছে। যাদবপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ১৯৮৭, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০১ ও ২০০৬ সালে ৫ বার এই আসন থেকে জিতেছিলেন। ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচন তৃণমূল কংগ্রেসের মণীশ গুপ্তের কাছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হেরে যান। ১৬ হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেন। মণীশ গুপ্ত উন্নয়ন ও পরিকল্পনা মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে নতুন মন্ত্রিসভায় তৃণমূলের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে সিপিএম প্রার্থী সুজন চক্রবর্তী জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৯৮ হাজার ৯৭৭৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন তৃণমূল প্রার্থী মণীশ গুপ্ত৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৮৪ হাজার ৩৫৷সিপিএম প্রার্থী সুজন চক্রবর্তী তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল প্রার্থী মণীশ গুপ্তকে ১৪ হাজার ৯৪২ ভোটে পরাজিত করেন।

২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনে এই কেন্দ্র থেকে জিতেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। তাঁর প্রাপ্ত ভোটসংখ্যা ছিল ৬ লক্ষ ৮৮ হাজার ৪৭২। বিজেপির অনুপম হাজরার প্রাপ্ত ভোটসংখ্যা ছিল ৩ লক্ষ ৯৩ হাজার ২২৩। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি অনুপম হাজরাকে এই কেন্দ্র থেকে ২ লক্ষ ৯৫ হাজার ২৪৯ ভোটে পরাজিত করেন মিমি। ২০১৪ সালের নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ড.‌সুগত বসু তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিএমের সুজন চক্রবর্তীকে পরাজিত করেন।

বন্ধ করুন