বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > জলপাইগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল - একনজরে সব তথ্য
১৭ এপ্রিল জলপাইগুড়িতে ভোটগ্রহণ। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
১৭ এপ্রিল জলপাইগুড়িতে ভোটগ্রহণ। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

জলপাইগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল - একনজরে সব তথ্য

  • ১৭ এপ্রিল জলপাইগুড়িতে ভোটগ্রহণ।

এই কেন্দ্রে এবারের তৃণমূলের প্রার্থী হলেন ডঃ প্রদীপকুমার বর্মা। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন আইনজীবী সুজিত সিনহা। অন্যদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন কংগ্রেসের সুখবিলাস বর্মা।

জলপাইগুড়ি জেলা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ভাগে অবস্থিত। জেলার পূর্বে পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ার জেলা, পশ্চিমে দার্জিলিং জেলা, উত্তরে ভুটান এবং দক্ষিণে কোচবিহার জেলা এবং বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলা অবস্থিত। এই জেলার সদর হল জলপাইগুড়ি। জলপাইগুড়ির বিধানসভা আসনগুলি হল - নাগরাকাটা, ধূপগুড়ি, মেখলিগঞ্জ, ময়নাগুড়ি, মালবাজার, ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি, জলপাইগুড়ি ও রাজগঞ্জ। ইতিহাস অনুযায়ী, এই জেলার নাম জল্পেশ্বর থেকে এসেছে যেটা শিব ঠাকুরের আরও এক নাম। কিন্তু কেউ কেউ বলে এই স্থানে আগে নাকি জলপাইয়ের গাছ প্রচুর মাত্রায় ছিল। যার জন্য এই জায়গার নাম জলপাইগুড়ি। পূর্বে এই স্থানটি কোচ-রাজবংশীদের এক ভাগ ছিল যার নাম ছিল কামতাপুর। ১৮৬৯ সালে এই জেলা স্থাপন করা হয়। জলপাইগুড়ি আসনটি তফসিলি জাতির জন্য সংরক্ষিত। ১৭ এপ্রিল জলপাইগুড়িতে ভোটগ্রহণ।

ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে ১৭ নম্বর জলপাইগুড়ি (তফসিলি জাতি) বিধানসভা কেন্দ্রটি জলপাইগুড়ি পুরসভা, অরবিন্দ, বাহাদুর, বোয়ালমাড়ি, নন্দনপুর, গরলবারি, খারিয়া, খারিজা বেরুবারি-১, খারিজা বেরুবারি-২, মণ্ডলঘাট, নগর বেরুবারি ও দক্ষিণ বেরুবারি গ্রাম পঞ্চায়েতগুলি জলপাইগুড়ি সিডি ব্লকের অন্তর্গত। জলপাইগুড়ি (তফসিলি জাতি) বিধানসভা কেন্দ্রটি জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্র তফসিলি জাতি কেন্দ্রের অন্তর্গত।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী সুখবিলাস বর্মা জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৯৪,৫৫৩৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন তৃণমূল প্রার্থী ধৃতিমোহন রায়। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৮৯,৩৯৬৷ কংগ্রেস প্রার্থী সুখবিলাস বর্মা তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল প্রার্থী ধৃতিমোহন রায়কে ৫,১৫৭ ভোটে পরাজিত করেছিলেন। ২০১১ সালের নির্বাচনে কংগ্রেসের সুখবিলাস বর্মা ফরওযয়ার্ড ব্লকের গোবিন্দচন্দ্র রায়কে এই আসনে পরাজিত করেছিলেন। ২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জলপাইগুড়ি আসনে কংগ্রেসের দেবপ্রসাদ রায় ফরওয়ার্ড ব্ল‌কের গোবিন্দ রায়কে পরাজিত করেছিলেন।

২০০১ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকের গোবিন্দ রায় তৃণমূল কংগ্রেসের অনুপম সেনকে এই আসনে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৯৬ সালে কংগ্রেসের অনুপম সেন ফরওয়ার্ড ব্লকের সুধাংশু মজুমদার ও ১৯৯১ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকের নির্মলকুমার বসুকে পারাজিত করেছিলেন। আবার ১৯৮২ ও ১৯৮৭ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকের নির্মলকুমার বসু কংগ্রেসের অনুপম সেন ও ১৯৭৭ সালে জনতা পার্টির দেবেন্দ্রমোহন সরকারকে এই আসনে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৭২ সালে কংগ্রেসের অনুপম সেন জয়ী হয়েছিলেন।

১৯৬৯ ও ১৯৭১ সালের নির্বাচনে সিপিআইয়ের নরেশচন্দ্র চক্রবর্তী জিতেছিলেন। তার আগে ১৯৬৭ সালে কংগ্রেসের খগেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত এই আসনে জিতেছিলেন। অবশ্য ১৯৬২ সালের আগে জলপাইগুড়ি কেন্দ্রটি একটি যৌথ আসন ছিল। ১৯৫৭ সালে কংগ্রেসের সরোজেন্দ্র দেব রক্ষিত ও খগেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত উভয়ই এই যৌথ আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৫১ সালে দেশের প্রথম নির্বাচনে কংগ্রেসের অশ্রুমতী দেবী ও খগেন্দ্রনাথ দাশগুপ্ত উভয়ই জলপাইগুড়ি আসনে জয়ী হয়েছিলেন।

বন্ধ করুন