বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > কান্দি বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল - একনজরে সব তথ্য

এই কেন্দ্রে এবারের তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন অপূর্ব সরকার (ডেভিড)। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন গৌতম রায়। বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে দাঁড়াচ্ছেন কংগ্রেসের সইফুল আলম খান।

মুর্শিদাবাদ বাংলা, বিহার, ওড়িশার প্রাক্তন রাজধানী। যার প্রতিষ্ঠাতা মুর্শিদকুলি খাঁ। মুর্শিদাবাদ হল এই জেলার একটি শহর ও পুরসভা এলাকা। অষ্টাদশ শতাব্দীতে মুর্শিদাবাদ একটি সমৃদ্ধ শহর ছিল। বর্তমান বাংলাদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও ওড়িশা রাজ্যগুলির আওতাধীন এই অঞ্চলটি ছিল। এই শহর একসময় বাংলার বংশগত নবাব ও রাজ্যের কোষাগার, রাজস্ব অফিস ও বিচার বিভাগের আসন ছিল। ১৭৫০ সালে এই শহরের জনসংখ্যা ৭ লাখে পৌঁছেছিল।

এই কেন্দ্রটি কান্দি পুরসভা কান্দি সমষ্টি উন্নয়ন ব্লক ও সাতুই চাউরিগাছা গ্রাম পঞ্চায়েত বহরমপুর সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের অন্তর্গত। কান্দি বিধানসভা কেন্দ্রটি বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী অপূর্ব সরকার জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৮১ হাজার ৭২৩৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ড.‌ শান্তনু সেন। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ছিল ৬০ হাজার ৯৪৩৷ কংগ্রেস প্রার্থী অপূর্ব সরকার তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ড.‌ শান্তনু সেনকে ২০ হাজার ৭৮০ ভোটে পরাজিত করেছিলেন। ২০১১ সালের নির্বাচনে কংগ্রেসের অপূর্ব সরকার তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআইয়ের আনিয়াল হককে পরাজিত করেছিলেন।

২০০৬ সালের নির্বাচনে নির্দল প্রার্থী অপূর্ব সরকারকে বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী সমর্থন করেছিলেন। অপূর্ব প্রথমে নির্দল প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। কিন্তু বিরোধী কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী তাঁকে তুলে ধরলে, কংগ্রেস প্রার্থী অতীশ সিনহা পুনরায় আপত্তি করেছিলেন। পরে তিনি কংগ্রেসে ফিরে আসেন। এই নির্বাচনে অপূর্ব কান্দিতাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআইয়ের আবদুল হামিদকে পরাজিত করেছিলেন।

২০০১ সালে কংগ্রেসের অতীশচন্দ্র সিংহ সিপিআইয়ের চন্দন সেন, ১৯৯৬ ও ১৯৯১ সালে সিপিআইয়ের সৈয়দ ওয়াহিদ রেজাকে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৮৭ সালে সিপিআইয়ের সৈয়দ ওয়াহিদ রেজা কংগ্রেসের বঙ্কিম ত্রিবেদীকে পরাজিত করেছিলেন। আবার ১৯৮২ সালে কংগ্রেসের অতীশচন্দ্র সিনহা সিপিআইয়ের সৈয়দ আবদুর রাজ্জাক ও ১৯৭৭ সালে জনতা পার্টির জগদীশ সিনহাকে পরাজিত করেছিলেন।

১৯৭২ ও ১৯৭১ সালে অতীশচন্দ্র সিনহা আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৬৯ সালে নির্দলের কুমার জগদীশচন্দ্র সিনহা এই আসনে জিতেছিলেন। ১৯৬৭ সালে কংগ্রেসের জি. ত্রিবেদী এই আসন থেকে জিতেছিলেন। ১৯৫৭ সালে কান্দি একটি যৌথ আসন ছিল। কংগ্রেসের সুধীর মণ্ডল ও বিমলচন্দ্র সিনহা উভয়ই এই যৌথ আসন থেকে জিতেছিলেন। ১৯৫১ সালে দেশের প্রথম নির্বাচনে কংগ্রেসের গোলবদন ত্রিবেদী কান্দি কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেছিলেন।

বন্ধ করুন