বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > মালবাজার বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল - একনজরে সব তথ্য
১৭ এপ্রিল মালবাজারে ভোটগ্রহণ। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
১৭ এপ্রিল মালবাজারে ভোটগ্রহণ। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

মালবাজার বিধানসভা কেন্দ্র ২০২১ : ভোটের প্রার্থী, অতীতের ফলাফল - একনজরে সব তথ্য

  • ১৭ এপ্রিল মালবাজারে ভোটগ্রহণ।

এই কেন্দ্রে তফসিলি উপজাতির জন্য সংরক্ষিত। মাল বিধানসভা কেন্দ্রে এবারের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হলেন বুলুচিক বারাইক। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন মহেশ বাগে। অন্যদিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন সিপিআইএমের প্রার্থী মনু ওঁরাও।

জলপাইগুড়ি জেলা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ভাগে অবস্থিত। জেলার পূর্বে পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ার জেলা, পশ্চিমে দার্জিলিং জেলা, উত্তরে ভুটান এবং দক্ষিণে কোচবিহার জেলা এবং বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলা অবস্থিত। এই জেলার সদর হল জলপাইগুড়ি। জলপাইগুড়ির বিধানসভা আসনগুলি হল - নাগরাকাটা, ধূপগুড়ি, মেখলিগঞ্জ, ময়নাগুড়ি, মালবাজার, ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি, জলপাইগুড়ি ও রাজগঞ্জ। ইতিহাস অনুযায়ী, এই জেলার নাম জল্পেশ্বর থেকে এসেছে যেটা শিব ঠাকুরের আরও এক নাম। কিন্তু কেউ কেউ বলে এই স্থানে আগে নাকি জলপাইয়ের গাছ প্রচুর মাত্রায় ছিল। যার জন্য এই জায়গার নাম জলপাইগুড়ি। পূর্বে এই স্থানটি কোচ-রাজবংশীদের এক ভাগ ছিল যার নাম ছিল কামতাপুর। ১৮৬৯ সালে এই জেলা স্থাপন করা হয়। মালবাজার বিধানসভা কেন্দ্র জলপাইগুড়ি জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র। ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে ২০ নম্বর মাল (তফসিলি উপজাতি) বিধানসভা কেন্দ্রটি মাল পুরসভা ও মাল সিডি ব্লকের অন্তর্গত।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বুলুচিক বারাইক জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৮৪,৮৭৭৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন সিপিএম প্রার্থী আগাস্টাস কেরকেট্টা। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৬৬,৪১৫৷ তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বুলুচিক বারাইক তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিএম প্রার্থী আগাস্টাস কেরকেট্টাকে ১৮ হাজার ৪৬২ ভোটে পরাজিত করেছিলেন। ২০১১ সালের নির্বাচনে তৎকালীন সিপিআইএমের বুলুচিক বারাইক কংগ্রেসের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিরামণি ওরাওঁকে পরাজিত করেছিলেন।

২০০১ ও ২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে সিপিআইএমের সোমরা লাকরা মাল এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছিলেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের তুরি কোল মুন্ডা এবং শ্যাম ভগতকে পরাজিত করেছিলেন তিনি। ১৯৯৬ ও ১৯৯১ সালের নির্বাচনে সিপিআইএমের জগন্নাথ ওরাওঁ জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৮৭, ১৯৮২ এবং ১৯৭৭ সালে সিপিআইএমের মোহনলাল ওরাওঁ জয়ী হয়েছিলেন।

১৯৬৭, ১৯৬৯, ১৯৭১ ও ১৯৭২ সালের নির্বাচনে কংগ্রেসের অ্যান্টনি টপ্নো এই আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৬২ সালে কংগ্রেসের বারেন্দ্রকৃষ্ণ ভৌমিক এই আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৫৭ সালে মাল একটি যৌথ আসন ছিল। সিপিআই'র মাংরু ভগত এবং কংগ্রেসের বন্ধু ভগত এই যৌথ আসনে জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৫১ সালে দেশের প্রথম নির্বাচনে প্রদেশ কংগ্রেসের শশধর কর ও মুন্ডা এন্টনি টপ্নো উভয়ই পশ্চিম ডুয়ার্স আসনে জয়লাভ করেছিলেন।

বন্ধ করুন