বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > হুইলচেয়ারে করে বাড়ি ফিরলেন মমতা, পরতে হবে বিশেষ চটি, এখনই নয় কর্মসূচিতে
হাসপাতাল থেকে বেরোচ্ছেন মমতা। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
হাসপাতাল থেকে বেরোচ্ছেন মমতা। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

হুইলচেয়ারে করে বাড়ি ফিরলেন মমতা, পরতে হবে বিশেষ চটি, এখনই নয় কর্মসূচিতে

হুইলচেয়ারে তাঁকে গাড়ি থেকে নামানো হল।

রীতিমতো বিধ্বস্ত। হাতজোড় করে নমস্কারের মধ্যেও যেন লুকিয়ে আছে অবসন্নতা। সেভাবেই হুইলচেয়ারে করে এসএসকেএম থেকে বেরিয়ে এলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রায় ৪৮ ঘণ্টা সেই হাসপাতালেই ভরতি ছিলেন তিনি। ইতিমধ্যে বাড়িও পৌঁছে গিয়েছেন। বাড়িতে হুইলচেয়ারে তাঁকে গাড়ি থেকে নামানো হয়েছে।

শুক্রবার এসএসকেএমের মেডিকেল বুলেটিনে জানানো হয়েছে, ছয় সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড মমতার শারীরিক অবস্থা খতিয়ে দেখেছে। তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। যে চোট আছে, তা কিছুটা ভালো হয়েছে মনে করা হচ্ছে। ফোলাও কমেছে। কম আছে গোড়ালির ব্যথাও। তাঁর প্লাস্টার কেটে নয়া প্লাস্টার করা হয়েছে। তবে এখনই মুখ্যমন্ত্রীকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার পক্ষপাতী ছিলেন না চিকিৎসকরা। আরও ৪৮ ঘণ্টা তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মমতা বাড়ি যাওয়ার জন্য একাধিকবার অনুরোধ জানান। তারই ভিত্তিতে আলোচনা করে মুখ্যমন্ত্রীকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়েছে।

বিধ্বস্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
বিধ্বস্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

সেইমতো শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছ'টার পর হুইলচেয়ারে করে উডবার্ন ওয়ার্ড থেকে বেরিয়ে আসেন মমতা। সঙ্গে ছিলেন ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিমরা। মমতাকে ধরে গাড়ির সামনের আসনে বসানো হয়। পিছনের আসনে বসেন অভিষেক। তারপর মমতার কনভয় কালীঘাটের দিকে রওনা দেয়। নন্দীগ্রামের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার মমতার কনভয়ের নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হয়। কিছুক্ষণ পর বাড়িতে পৌঁছে যান তিনি। গাড়িতে মমতাকে রীতিমতো অবসন্ন লাগছিল। মাথায় হাত দিয়ে বসেছিলেন। 

তবে বাড়ি ফিরলেও মমতাকে বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তাঁরা জানিয়েছেন, আগামী কয়েকদিন বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা করতে হবে। সাতদিন পরে আবারও পরীক্ষার জন্য যেতে হবে। এখনই সক্রিয়ভাবে রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যোগ দিতে পারবেন না মমতা। সব নিয়ম মেনে চলার বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সূত্রের খবর, চিকিৎসকরা মমতাকে হাওয়াই চটি না ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু চটিতেই স্বাচ্ছন্দ্য বলে জানান মমতা। সেজন্য বিশেষ চটির বন্দোবস্ত করা হয়েছে। নয়া চটিতে কোনও অস্বস্তি হচ্ছে না বলেও জানিয়েছেন তিনি। 

উল্লেখ্য, গত বুধবার মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর নন্দীগ্রামের রেয়াপাড়ার কাছে নিজের অস্থায়ী ডেরায় ফেরার সময় চোট পান মমতা। বাঁ-পায়ে এতটাই যন্ত্রণায় অনুভূত হচ্ছিল যে চিকিৎসকদের পরামর্শে তড়িঘড়ি কলকাতায় ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নেন। সেইমতো সেদিন রাত সাড়ে আটটা নাগাদ এসএসকেএমে ভরতি করা হয়েছিল মমতাকে। 

বন্ধ করুন