বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > মোদীর কাছে ফেসবুকের খবর থাকে, মানুষের খোঁজ নেই, আক্রমণ অভিষেকের

নরেন্দ্র মোদীর কাছে ফেসবুকের খবর থাকে। কিন্তু মানুষের খবর থাকে না। দাসপুরের জনসভা থেকে এই ভাষাতেই মোদীকে আক্রমণ করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাসপুর বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মমতা ভুঁইঞার সমর্থনে ভগীরথপুর মাঠে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচনী জনসভা করেন। অভিষেক দাবি করেন, মোদী মানুষের বিপদে আপদে পাশে থাকেন না, মানুষের উন্নয়নে কোনও কাজ করেন না, কেবলমাত্র ফেসবুকেই থাকেন। তাই গরিব মানুষের পাশে থাকতে দেখা যায়নি মোদীকে।একইসঙ্গে বিজেপিকে আক্রমণ শানিয়ে অভিষেক বলেন, ‘‌বাংলায় ডবল ইঞ্জিন সরকার চাই বলে বিজেপি প্রচার করছে। ডবল ইঞ্জিনের সরকার হলে বেশি চুরি হবে। বিজেপির চোরেরা বেশি চুরি করবে। তাই বহিরাগতদের বাংলা ছাড়া আমরা করব।’

‌গত শনিবার খড়্গপুরে মোদী কটাক্ষ করে বলেছিলেন, ‘গতরাতে বিশ্বজুড়ে ৫০-৫৫ মিনিট ধরে হোয়্যাটসঅ্যাপ এবং ইনস্টাগ্রামে ডাউন ছিল। তাতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে। সবাই অধীর হয়ে উঠেছিলেন। বাংলায় তো ৫০-৫৫ বছর ধরে উন্নয়ন, সংকল্প, স্বপ্ন ডাউন হয়ে গিয়েছে। আপনাদের অপেক্ষার প্রহর বুঝতে পারছি।’ সেই রেশ ধরেই আক্রমণ শানান অভিষেক। 

তিনি আরও বলেন, ‘‌দাসপুর এলাকায় সোনার হাব তৈরি হবে। যার ফলে বিশেষভাবে উপকৃত হবেন সোনার কারিগররা। আগামিদিনে যদি তৃণমূল কংগ্রেস এ রাজ্যে ক্ষমতায় আসে এই এলাকার আরও উন্নয়ন হবে। যাঁরা মানুষের বিপদে-আপদে পাশে থাকেন না, যাঁরা মানুষের কোনও উন্নয়নের কাজ করেন না, যাঁরা শুধু মানুষের সর্বনাশ করেন, তাঁরাই এখন বড় বড় কথা বলছেন। ২ মে ভোট গণনার পর প্রকৃত খেলা শুরু হবে ।সেই খেলা হবে উন্নয়নের খেলা। ২৭ মার্চ জঙ্গল থেকে শুরু হবে খেলা, এরপর শেষ হবে ২৯এপ্রিল। খেলার ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পরেই আসল খেলা শুরু হবে। সেই খেলা হল উন্নয়নের খেলা।’

বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর নাম না করে ‘‌বিশ্বাসঘাতক’‌ আখ্যা দিয়ে অভিষেক বলেন, ‘‌এরা ভাবছে, সিবিআই, ইডি লাগিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে দমিয়ে রাখবে। আমার গলা কেটে নিলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায জিন্দাবাদ বেরোবে। আমার বিরুদ্ধে যা করার করে নাও।তোমার জেদের থেকেও দ্বিগুণ জেদ আমার। তোমার জেদ বহিরাগতদের দিয়ে বাংলা দখল করবে। আর আমার জেদ বহিরাগতদের বাংলা ছাড়া করব।’‌

বন্ধ করুন