বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > নাগরাকাটা(পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা) 2021 LIVE: জয়ী বিজেপির পোনা ভেংগ্রা

বিধানসভা নির্বাচনে ৯৪,৩৭১ ভোট পেয়ে জয়ী বিজেপির পোনা ভেংগ্রা। অন্যদিকে তৃণমূল প্রার্থী জোসেফ মুন্ডা ৭০,৯৯৯টি ভোট পেয়েছেন।


এই কেন্দ্রে তফসিলি উপজাতির জন্য সংরক্ষিত। নাগরাকাটা বিধানসভা কেন্দ্রে এবারের তৃণমূলের প্রার্থী হলেন জোসেফ মুন্ডা। এই আসনে বিজেপির তরফে দাঁড়াচ্ছেন পোনা ভেংগ্রা। অন্য দিকে, বাম-কংগ্রেস-ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) তরফে এই কেন্দ্রে দাঁড়াচ্ছেন কংগ্রেসের সুখবীর সুব্বা।

জলপাইগুড়ি জেলা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ভাগে অবস্থিত। জেলার পূর্বে পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ার জেলা, পশ্চিমে দার্জিলিং জেলা, উত্তরে ভুটান এবং দক্ষিণে কোচবিহার জেলা এবং বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলা অবস্থিত। এই জেলার সদর হল জলপাইগুড়ি। জলপাইগুড়ির বিধানসভা আসনগুলি হল - নাগরাকাটা, ধূপগুড়ি, মেখলিগঞ্জ, ময়নাগুড়ি, মালবাজার, ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি, জলপাইগুড়ি ও রাজগঞ্জ। ইতিহাস অনুযায়ী, এই জেলার নাম জল্পেশ্বর থেকে এসেছে যেটা শিব ঠাকুরের আরও এক নাম। কিন্তু কেউ কেউ বলে এই স্থানে আগে নাকি জলপাইয়ের গাছ প্রচুর মাত্রায় ছিল। যার জন্য এই জায়গার নাম জলপাইগুড়ি। পূর্বে এই স্থানটি কোচ-রাজবংশীদের এক ভাগ ছিল যার নাম ছিল কামতাপুর। ১৮৬৯ সালে এই জেলা স্থাপন করা হয়। নাগরাকাটা বিধানসভা কেন্দ্র জলপাইগুড়ি জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র। ১৭ এপ্রিল নাগরাকাটায় ভোটগ্রহণ।

ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে ২১ নম্বর নাগরাকাটা (তফসিলি উপজাতি) বিধানসভা কেন্দ্রটি নাগরাকাটা সিডি ব্লক, মতিয়ালি সমষ্টি উন্নয়ন ব্লক, বনরহাট-২ ও ছামুর্চি গ্রাম পঞ্চায়েত ধূপগুড়ি সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের অন্তর্গত। নাগরাকাটা (তফসিলি উপজাতি) বিধানসভা কেন্দ্রটি ২ নম্বর আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের (তফসিলি উপজাতি) অন্তর্গত।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী শুক্রা মুন্ডা জয়ী হয়েছিলেন৷ তাঁর প্রাপ্ত ভোট ছিল ৫৭,৩০৬৷ দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী জোসেফ মুন্ডা। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ৫৪,৭৮৷ তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী ৩,২২৮ ভোটে জিতেছিলেন।

২০১১ সালের নির্বাচনে কংগ্রেসের জোসেফ মুন্ডা নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআইএমের সুখমৈথ পিটিং ওরাওঁকে পরাজিত করেছিেলন। ২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে সিপিআইএমের সুখমৈথ (পিটিং) ওরাওঁ ২১ নম্বর নাগরাকাটা (তফসিলি উপজাতি) আসনে জয়ী হয়েছিলেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের শংকর বারিককে পরাজিত করেছিলেন তিনি। ২০০১ সালে সিপিআইএমের চৈতান মুন্ডা, তৃণমূল কংগ্রেসের গণেশ ওরাওঁকে এই আসনে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৯৬ সালে কংগ্রেসের ভিক্টর লাকরা, ১৯৯১ সালে কংগ্রেসের ভাদেয়া ওরাওঁ, ১৯৮৭ সালে সিপিআইএমের সুকরা ওরাওঁ ও কংগ্রেসের ভাদেয়া ওরাওঁকে পরাজিত করেছিলেন চৈতান। ১৯৮২ সালে সিপিআইএমের পুনাই ওরাওঁ, কংগ্রেসের টুনা ওরাওঁ ও ১৯৭৭ সালে কংগ্রেসের হেমরাজ ভগতকে পরাজিত করেছিলেন। ১৯৭২ সালে সিপিআইয়ের প্রেম ওরাওঁ এই আসনে জয়ী হযেছিলেন। তার আগে ১৯৭১ সালে সিপিআইএমের পুনাই ওরাওঁ জয়ী হয়েছিলেন। ১৯৬২, ১৯৬৭ ও ১৯৬৯ সালে জিতেছিলেন কংগ্রেসের বন্ধু ভগত। ১৯৫৭ সালে সিপিআই'র মাংরু ভগত ও কংগ্রেসের বন্ধু ভগত উভয়ই এই(তফসিলি উপজাতি) যৌথ আসন থেকে জয়ী হয়েছিলেন।

বন্ধ করুন