বাংলা নিউজ > ভোটের লড়াই > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > মিথ্যে কথা বলা অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন, বিধানসভায় প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ মমতার
বিধানসভায় মমতা। 
বিধানসভায় মমতা। 

মিথ্যে কথা বলা অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন, বিধানসভায় প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ মমতার

  • আমাদের কাছে ৬ লক্ষ কৃষকের তথ্য পৌঁছেছে। তার মধ্য ২.৫ লক্ষ কৃষকের তথ্য আমরা ভেরিফিকেশন করে দিয়েছি। দেও তোমার টাকা।

কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্প নিয়ে মিথ্যাচার করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোমবার রাজ্য বিধানসভার অন্তিম অধিবেশনের শেষ দিনে এমনটাই দাবি করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, ওই প্রকল্পের অধীন অন্তত ২.৫ লক্ষ কৃষকের তথ্য ভেরিফিকেশন করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। সঙ্গে এদিন ক্ষেতমজুর ও ভাগচাষীদেরও এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানান মুখ্যমন্ত্রী। 

রবিবার হলদিয়ায় এসে কিসান সম্মান নিধি পশ্চিমবঙ্গে চালু না হওয়ায় মমতা সরকারকে আরেক দফা ঠোকেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বলেন, ‘রাজ্যের প্রায় ২৬ লক্ষ কৃষক এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য আবেদন করেছেন। তার মধ্যে মাত্র ৬,০০০ কৃষকের তথ্য ভেরিফিকেশন করেছে রাজ্য সরকার। তাদেরও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর কেন্দ্রকে জানায়নি। ফলে সেই ৬,০০০ কৃষককেও টাকা পাঠাতে পারছে না কেন্দ্র।’

এদিন প্রধানমন্ত্রীর এই দাবিকে খণ্ডন করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মিথ্যে কথা বলা অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন মোদী। আমরা বার বার বলেছি তথ্য দেও। এতদিন পর পোর্টালে তথ্য দিয়েছে। আমাদের কাছে ৬ লক্ষ কৃষকের তথ্য পৌঁছেছে। তার মধ্য ২.৫ লক্ষ কৃষকের তথ্য আমরা ভেরিফিকেশন করে দিয়েছি। দেও তোমার টাকা।’

সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলার কৃষকদের কথা ভাবেই না কেন্দ্রীয় সরকার। রাজ্যের প্রাপ্য টাকাও দেয় না। এমন নির্দয় কেন্দ্রীয় সরকার দেখিনি।’ এদিন বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মমতা দাবি করেন, ‘কেন্দ্রীয় প্রকল্পে একরপ্রতি ৬,০০০ টাকা মেলে। আমরা ১ কাঠা জমি থাকলেও টাকা দিই। আমরা চাই ভাগচাষী ও ক্ষেতমজুরদেরও এই প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হোক।’

 

বন্ধ করুন