বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > শাহের সভায় কালো পতাকা দেখানোয় শিক্ষিকাদের 'শাড়ি টানাটানি', 'মারধর' BJP কর্মীদের
এই সভাতেই কালো পতাকা দেখানো হয়েছিল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
এই সভাতেই কালো পতাকা দেখানো হয়েছিল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

শাহের সভায় কালো পতাকা দেখানোয় শিক্ষিকাদের 'শাড়ি টানাটানি', 'মারধর' BJP কর্মীদের

  • ঘটনাটি ঘটেছে নামখানায়। সেখানেই সভা ছিল অমিত শাহের।

অমিত শাহের সভায় শিক্ষিকা নিগ্রহের অভিযোগ। আর এই অভিযোগ ওঠার সঙ্গে সঙ্গে তদন্তে নামল পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে নামখানায়। সেখানেই সভা ছিল অমিত শাহের। সেই সভায় শাহকে কালো পতাকা দেখানো হয়েছিল। এই কালো পতাকা দেখিয়েছিল শিক্ষক ঐক্য মঞ্চ। গেরুয়া শিবিরের নেতাদের নিগ্রহের মুখে পড়েন শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের সদস্য ছবি চাকি, অণিমা নাথ, মিলি বিশ্বাস ও ফতেমা কানিজ। পরে তাঁদের কাকদ্বীপ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। যদিও রাতে তাঁদের চারজনকেই ছেড়ে দেওয়া হয়। এই ঘটনায় শিক্ষিকা ছবি চাকি কাকদ্বীপ থানায় বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে নিগ্রহের অভিযোগ দায়ের করেন। আর এই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশের কাছে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা উল্লেখ করা হয়েছে, চারটি বিষয় তুলে ধরতে বিজেপির সভায় গিয়েছিলেন তাঁরা। তার মধ্যে কালো পতাকা নেড়ে বলা হয়েছিল এই রাজ্যকে ত্রিপুরা হতে দেওয়া হবে না। কেন নেতাজির জন্মজয়ন্তীর দিন, প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীকে 'অপমান' করা হয়েছে, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। একইসঙ্গে কবে নিজের দেওয়া প্রতিশ্রুতি মেনে প্রত্যেক নাগরিকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৫ লাখ টাকা আসবে, তা নিয়ে জানতে চাওয়া হয়। আর জাতীয় শিক্ষানীতি বাতিলের দাবি তুলেছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জানুয়ারি বিধানসভার মূল ফটকের সামনে শিক্ষকদের বিক্ষোভেও হাজির ছিলেন তাঁরা। সেদিন তাঁরা বিধানসভায় ঢোকার চেষ্টা করেছিলেন। তাঁদের দাবি, বঞ্চনার অভিযোগে রাজ্য ও কেন্দ্র— দুই সরকারের বিরুদ্ধেই আন্দোলন করছিলেন। ছবি চাকির দাবি, ‘গত চার বছরে আন্দোলন করতে গিয়ে সাতবার জেলে গিয়েছি। কোনও রাজনৈতিক দলের হয়ে কাজ করিনি।’

শাহের সভামঞ্চে তাঁরা কালো পতাকা দেখিয়েছিলেন। তাঁদের অভিযোগ, ‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাঁর দলের কর্মীদের বলেছিলেন, আমাদের যেন সম্মান দিয়ে সভাস্থল থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু সেটা তো করেনি বরং আমাদের শাড়ি ধরে টানাটানি করা হয়। গলায় চাদর পেঁচিয়ে টানতে টানতে নিয়ে গিয়েছিল বিজেপি কর্মীরা। আমাদের যেভাবে মারধর করা হয়েছে, তা না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না। যে ভাষায় ওরা কথা বলছিল, তা সভ্য মানুষ ব্যবহার করে না।’

বন্ধ করুন