বাংলা নিউজ > ভোটের লড়াই > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > থাইল্যান্ডের অ্যাকাউন্ট তাঁর নয়, জানিয়েছেন রুজিরা, খবর সিবিআই সূত্রে
রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি
রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

থাইল্যান্ডের অ্যাকাউন্ট তাঁর নয়, জানিয়েছেন রুজিরা, খবর সিবিআই সূত্রে

  • তদন্তকারীরা জানাচ্ছেন, এদিন বেশ কিছু প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গিয়েছেন রুজিরা নারুলা। ফলে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সন্তুষ্ট নন তাঁরা। কয়লাপাচারের তদন্তে ফের তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলেও সিবিআই সূত্রের খবর।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী দেড় ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদের পর সন্তুষ্ট নন গোয়েন্দারা। মঙ্গলবার বিকেলে এমনই জানা গিয়েছে সিবিআই সূত্রে। এদিন থাইল্যান্ডের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট তাঁর নয় বলে দাবি করেছেন অভিষেকের স্ত্রী। সিবিআই সূত্রের খবর, জবাব খতিয়ে দেখে ফের তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন গোয়েন্দারা। 

সিবিআই সূত্রের খবর, এদিন অভিবাসনের জন্য রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জমা দেওয়া নথিপত্র ও থাইল্যান্ডের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করেন গোয়েন্দারা। অভিষেকের স্ত্রীকে দেখান থাইল্যান্ডের কাশীকর্ণ ব্যাঙ্কে রুজিরা নারুলা নামে এক ব্যক্তির ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের পাস বইয়ের প্রথম পাতার প্রতিলিপি। বেশ কিছুক্ষণ সেটি হাতে নিয়ে খুঁটিয়ে দেখেন রুজিরাদেবী। তার পর জানান, এই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট তাঁর নয়। ওই নথির একটি ছবি তুলে রাখার অনুমতি চান রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সেই অনুমতি দেননি গোয়েন্দারা। 

তদন্তকারীরা জানাচ্ছেন, এদিন বেশ কিছু প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গিয়েছেন রুজিরা নারুলা। ফলে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সন্তুষ্ট নন তাঁরা। কয়লাপাচারের তদন্তে ফের তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলেও সিবিআই সূত্রের খবর। তবে তার আগে এদিন তাঁর দেওয়া বয়ান ভাল করে খতিয়ে দেখবেন গোয়েন্দারা। তাছাড়া থাইল্যান্ডের ব্যাঙ্কটির কাছ থেকে ওই অ্যাকাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জোগাড় করতে বিদেশ মন্ত্রকের সঙ্গেও যোগাযোগ করতে পারেন সিবিআইয়ের গোয়েন্দারা। 

রুজিরাদেবীর দেওয়া সময় মেনে মঙ্গলবার দুপুরে হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটের শান্তিনিকেতন ভবনে পৌঁছয় ৮ জনের সিবিআই দল। তার মধ্যে ছিলেন ২ জন মহিলা আধিকারিক। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন গোয়েন্দারা। অভিষেক ও রুজিরার ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রের খবর, জিজ্ঞাসাবাদে কোথাও কোনও সমস্যা হয়নি। এই তদন্তে সিবিআইয়ের পরবর্তী পদক্ষেপের দিকে তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

 

বন্ধ করুন