বাংলা নিউজ > ভোটের লড়াই > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > হলদিয়ায় মোদীর অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না দেব, টুইটে উত্তর দিলেন সৌমিত্র খাঁকে
তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেতা দেব ও ‌প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল ছবি
তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেতা দেব ও ‌প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল ছবি

হলদিয়ায় মোদীর অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না দেব, টুইটে উত্তর দিলেন সৌমিত্র খাঁকে

  • ২টি সরকারি প্রকল্পের সূচনা এবং ১টি প্রকল্পের শিলান্যাস করতে ৭ ফেব্রুয়ারি, রবিবার হলদিয়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জল্পনার অবসান। প্রধানমন্ত্রীর হলদিয়ার অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেতা দেব। বুধবার বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ–র দাবিকে নাকচ করে এ কথা প্রকাশ্যে টুইট করে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ঘাটালের সাংসদ দীপক অধিকারী তথা দেব। ওই অনুষ্ঠানে থাকতে না পারার জন্য সৌমিত্র খাঁর কাছে ক্ষমা প্রকাশও করেছেন তিনি।

২টি সরকারি প্রকল্পের সূচনা এবং ১টি প্রকল্পের শিলান্যাস করতে ৭ ফেব্রুয়ারি, রবিবার হলদিয়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানেই আমন্ত্রিত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। একইসঙ্গে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে তিন তৃণমূল সাংসদকে। তাঁরা হলেন শিশির অধিকারী, দিব্যেন্দু অধিকারী এবং অভিনেতা সাংসদ দীপক অধিকারী তথা দেবকে।

এ পর্যন্ত ব্যাপারটি ঠিকই ছিল। কিন্তু বুধবার সকালে বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁর একটি টুইটকে ঘিরে রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায়। তিনি একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমের খবর পোস্ট করে টুইটে লেখেন, ‘‌হলদিয়ায় মোদীর সাথে একই মঞ্চে থাকবেন দেব আর শিশির অধিকারী।’‌

এর পরই এই টুইটের জবাবে এদিন সকালেই বিজেপি সাংসদের উদ্দেশে দেব লেখেন, ‘‌আপনার রাজনৈতিক জীবনের যাত্রা ও সাফল্য দেখে আমার সত্যিই গর্ব হয়। তবে আমন্ত্রণ পেয়েও ওই অনুষ্ঠানে থাকতে না পারার জন্য আমি আন্তরিকভাবে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। আমাদের রাজনৈতিক মতাদর্শ ভিন্ন হওয়া সত্ত্বেও আপনার প্রতি আমার বিশেষ ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা রয়েছে।’‌

টুইটে দেব আরও লিখেছেন, ‘‌আমাদের রাজনৈতিক ভাবনাচিন্তা একেবারে আলাদা, তবে আমরা আগে একই দলে থাকার সময় যে সুন্দর সময় কাটিয়েছি, তা আমি এখনও স্মরণ করি। এই অনুষ্ঠানের জন্য আমার শুভ কামনা রইল। শুভ কামনা রইল আপনার এবং আপনার দলের প্রতিও।’‌ এভাবেই এদিন রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বিতার মাঝেও সৌজন্যতার নজির রাখলেন ঘাটালের তৃণমূল সাংসদ।

উল্লেখ্য, উজ্জ্বলা যোজনার আওতায় যাতে নিরবিচ্ছিন্ন পরিষেবা প্রদান করা সম্ভব হয় তার জন্য ১১০০ কোটি টাকা খরচ করে এলপিজি টার্মিনাল বানানো হয়েছে হলদিয়ায়। রবিবার সেটি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

এছাড়াও আত্মনির্ভর ভারতের লক্ষ্যে লুব্রিকেন্ট বেস অয়েল বানানোর জন্য হলদিয়া পেট্রোকেমিক্যালে ১০০০ কোটি টাকার বেশি ব্যয়ে গড়ে উঠেছে কারখানা। তার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হবে। শুধু তাই নয়, মিনিস্ট্রি অফ রোড ট্রান্সপোর্টের আওতায় একটি রাস্তার প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে। প্রধানমন্ত্রী উর্যা গঙ্গা যোজনার আওতায় পাইপলাইনের মাধ্যমে গ্যাসের সরবরাহ করা হবে। ২৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সেই প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন নরেন্দ্র মোদী। তবে এই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন কিনা তা এখনও জানা যায়নি।

বন্ধ করুন