বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > মমতাকে জিরো করে ছাড়বে, ওর ঘুম হারাম হয়ে গেছে, ব্রিগেডে বললেন আব্বাস সিদ্দিকি
রবিবার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডের জনসভায় বক্তব্য রাখছেন ISF-এর পৃষ্ঠপোষক আব্বাস সিদ্দিকি। 
রবিবার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডের জনসভায় বক্তব্য রাখছেন ISF-এর পৃষ্ঠপোষক আব্বাস সিদ্দিকি। 

মমতাকে জিরো করে ছাড়বে, ওর ঘুম হারাম হয়ে গেছে, ব্রিগেডে বললেন আব্বাস সিদ্দিকি

  • ভাগিদারি করতে এসেছি, কারও তোষণ করতে আমি আসিনি। পিছিয়ে পড়া মানুষের হক বুঝে নিতে হবে, কংগ্রেসেকে বার্তা আব্বাসের

বাম – কংগ্রেসের যোথ ব্রিগেড সমাবেশে বক্তব্য দিতে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসকে উৎখাতের পাশাপাশি জোট নিয়ে কংগ্রেসকে বার্তা দিলেন ISF-এর পৃষ্ঠপোষক আব্বাস সিদ্দিকি। রবিবারের ব্রিগেডে তিনি বলেন, ভাগিদারি করতে এসেছি, তোষণ করতে হয়। 

এদিন শুরু থেকেই চালিয়ে খেলেন আব্বাস। বলেন, ‘যেখানে যেখানে বাম শরিক দল প্রার্থী দেবে, সেখানে রক্ত দিয়ে হলেও মাতৃভূমিকে স্বাধীন আমরা করবো। পুরনো দিনে কী হয়েছে সব ভুলে গিয়ে এই বিজেপি সরকার আর বিজেপি সরকারেরই টিম মমতা সরকারকে উৎখাত করে আমরা ছাড়বো’। 

রাজ্য সরকারের তুমুল সমালোচনা করে আব্বাস বলেন, ‘আজকে বাংলার স্বাধীনতা কেড়েছে এই মমতা। নারীদের অধিকার কেড়েছে এই মমতা। একটা রেপের জন্য ২ লক্ষ টাকা মূল্য ধারণ করেছে এই মমতা। সরকার সাহায্যপ্রাপ্ত নয় এমন মাদ্রাসার শিক্ষকরা, টেটের শিক্ষকরা, পার্শ্ব শিক্ষকরা, সিভিক ভলান্টিয়াররা, পুলিশ কর্মীরা মমতার আমলে বিপদে রয়েছে। এর দাদাগিরিতে কেউ কথা বলতে পারে না। একমাত্র এই বাঘের বাচ্চাটা কথা বলে। আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে গেলাম, ২০২১-এ মমতাকে জিরো করে আমরা দেখিয়ে দেবো। সঙ্গে বিজেপি নামক কালো হাতটাকে ভেঙে দেশ থেকে নিখোঁজ করে দিতে হবে’। 

আব্বাসের অভিযোগ, ‘বাংলার মানুষ মমতার ওপরে ক্ষিপ্ত। এদের দুর্নীতিতে বাংলার মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে গিয়েছে। বাংলার মানুষকে এতদিন প্রশাসন দেখিয়ে রুখে রেখেছিল। কিন্তু এখন আর ভয় পাওয়ার ব্যাপার নেই, কারণ দিদিমণির হাত থেকে প্রশাসন চলে গিয়েছে নির্বাচন কমিশনের হাতে। আর এক মাস পর বাংলা দিদির হাত থেকে চলে যাচ্ছে। আমরা বাংলা দখল করবো। আমরা গণতন্ত্র বাঁচাবো, বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান দেবো, প্রত্যেকের পেটে ভাতের জোগান দেবো, শিল্প তৈরি করবো’। 

এর পরই কংগ্রেস সম্পর্কে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেন তিনি। বলেন, ‘আপনাদের মনে একটা প্রশ্ন জাগতে পারে যে আপনি বললেন যেখানে যেখানে বাম শরিক দাঁড়াবে সেখানে সেখানে ভোট দেবেন, কংগ্রেসের নাম বললেন না কেন? একটা কথা স্পষ্ট করতে চাই, ভাগিদারি করতে এসেছি, কারও তোষণ করতে আমি আসিনি। পিছিয়ে পড়া মানুষের হক বুঝে নিতে হবে। যদি কেউ মনে করে বন্ধুত্বের হাত বাড়ানো দরকার, দরজা খোলা রয়েছে। আগামী দিনে তাদের হয়েও আব্বাস সিদ্দিকি লড়াই করবে, কথা দিয়ে গেলাম’।  

সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তাঁর কটাক্ষ, ‘আজ সব থেকে বেশি আফশোস করছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। ওর ঘুম হারাম হয়ে গিয়েছে’। ৩০ আসন ছাড়ার জন্য বিমান বসুকে বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। বক্তব্য শেষে ‘আমরা ভারতীয়, আমরা গর্বিত, ভিক্ষা নয়, অধিকার চাই’ স্লোগান তোলেন আব্বাস। 

 

বন্ধ করুন