লোকাল ট্রেনে মহিলা যাত্রীদের সঙ্গে ভোটপ্রচারে লকেট চট্টোপাধ্যায়। 
লোকাল ট্রেনে মহিলা যাত্রীদের সঙ্গে ভোটপ্রচারে লকেট চট্টোপাধ্যায়। 

ভোটপ্রচারে লোকাল ট্রেনে লকেট

  • লোকাল ট্রেনে ভোটপ্রচার এরাজ্যে নতুন নয়। তবে করোনা আবহে এই ধরণের প্রচার কতটা স্বাস্থ্যসম্মত তা নিয়ে প্রশ্ন থাকবে। এদিন ট্রেনে যাত্রীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন লকেটদেবী।

হাতে আর মাত্র একটা দিন। তার পরই ভোটপ্রচারে ইতি চতুর্থ দফার। তাই করোনার পরোয়া না করে ভোটপ্রচার করলে লোকাল ট্রেনে উঠে পড়লেন চুঁচুড়া কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়। বুধবার চুঁচুড়া থেকে ব্যান্ডেল পর্যন্ত লোকাল ট্রেনে করে ভোটপ্রচার করেন তিনি। 

লোকাল ট্রেনে ভোটপ্রচার এরাজ্যে নতুন নয়। তবে করোনা আবহে এই ধরণের প্রচার কতটা স্বাস্থ্যসম্মত তা নিয়ে প্রশ্ন থাকবে। এদিন ট্রেনে যাত্রীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন লকেটদেবী। মহিলা কামরায় উঠে মহিলা যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। জানেন তাঁদের সমস্যার কথা। এর পর পদ্মফুল আঁকা হাতপাখা তুলে দেন যাত্রীদের হাতে। 

প্রচার শেষে লকেটদেবী বলেন, ‘ভোটগ্রহণের আগে সমস্ত ভোটারের কাছে পৌঁছে যাওয়া আমার কর্তব্য। সেই চেষ্টাই করেছি। বাংলার মানুষকে বিজেপি সরকার এলে এরাজ্যের কী কী সুবিধা হবে তা বুঝিয়ে বলেছি। মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থনে আমি আপ্লুত।’

বলে রাখি, আগামী ১০ এপ্রিল চতুর্থ দফায় চুঁচুড়ায় ভোটগ্রহণ। বৃহস্পতিবার সেখানে ভোটপ্রচারের শেষ দিন। বর্তমানে হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করলে বিধায়ক হিসাবে শপথগ্রহণের আগে সাংসদ পদে ইস্তফা দিতে হবে তাঁকে।

 

বন্ধ করুন