বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন 2021 > মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন রাজ্যপালের, সোমবার সন্ধ্যে সাক্ষাৎ দু’‌পক্ষের
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন রাজ্যপালের, সোমবার সন্ধ্যে সাক্ষাৎ দু’‌পক্ষের

  • এই জয়ে তৃণমূল সুপ্রিমোকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

বারবারই দেখা গিয়েছে নবান্ন–রাজভবন সংঘাত। তাই বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলের পর একটু থম মেরে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কিছুক্ষণ পর তাঁর সম্বিত ফিরল। বুঝলেন বিজেপি রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল হয়েছে। বাংলার মসনদ রয়েছে বাংলার নিজের মেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতেই। আর এটাই বাংলার মানুষের রায়। তাই এই জয়ে তৃণমূল সুপ্রিমোকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি। আর সোমবার সন্ধ্যে ৭টায় রাজভবনে সাক্ষাৎ হতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং জগদীপ ধনখড়ের।

রবিবার ভোট গণনার পরে ধনখড় টুইট করে লেখেন, ‘গণতন্ত্রের অর্থ হল, জনগণের রায় মেনে নেওয়া। গণতন্ত্রে হিংসার কোনও জায়গা নেই’। এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে রাজ্যে বাড়তে থাকা কোভিডের মোকাবিলা করছেন, তার প্রশংসা করে রাজ্যপাল লেখেন, ‘কোভিডের নিয়ম যেভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেনে চলছেন, তাকে সাধুবাদ জানাতেই হয়’।

রবিবার টুইটের শেষ অংশে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার কথা তুলে ধরে রাজ্যপাল লেখেন, ‘রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে। তার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক, পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশকে বলেছি’। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন বারবার মুখ্যমন্ত্রী–রাজ্যপাল সংঘাত দেখা গিয়েছে। যার জন্য রাজ্যপালের নাম দেওয়া হয় পদ্মপাল। রাজ্যপালও এই সরকারকে ফ্যাসিস্ট বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। এখন অবশ্য সেসব অতীত।

বন্ধ করুন