বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > KRK Back on Twitter: জামিন পেয়েই চেনা মেজাজে কেআরকে, হুঙ্কার তুলে ঘোষণা 'প্রতিশোধ নিতে ফিরে এসেছি'
বিস্ফোরক কেআরকে (ছবি সৌজন্যে- HT এবং ইউটিউব)

KRK Back on Twitter: জামিন পেয়েই চেনা মেজাজে কেআরকে, হুঙ্কার তুলে ঘোষণা 'প্রতিশোধ নিতে ফিরে এসেছি'

  • KRK back on Twitter: 'গ্রেফতারির প্রতিশোধ নিতে ফিরে এলাম', শক্রুদের উদ্দেশে এমনই বার্তা জামিনে মুক্ত কেআরকে-র। 

বলিউড তারকাদের নিয়ে আলটপকা মন্তব্য করে সংবাদ শিরোনামে থাকতে ভালোবাসেন তিনি। কথা হচ্ছে, বয়কট সংস্কৃতির অন্যতম কাণ্ডরী কামাল রশিদ খান ওরফে কেআরকে। অক্ষয় কুমারের ‘লক্ষ্মী’ ছবি নিয়ে বিতর্কিত টুইট লিখে গত ৩০শে অগস্ট ভোররাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন তিনি। এরপর জেলবন্দি থাকা অবস্থাতেই যৌন হয়রানির মামলায় ফের গ্রেফতার হন কেআরকে। এই দুই মামলায় গত মঙ্গলবার ও বুধবার শর্তসাপেক্ষে জামিন পান এই স্বঘোষিত ফিল্ম সমালোচক। আর দিন কয়েকের বিরতির পর রবিবার টুইটারে ফিরলেন কেরআকে। আর শুরুতেই তাঁর মুখে ‘প্রতিশোধ’-এর বুলি!

'গ্রেফতারির প্রতিশোধ নিতে ফিরে এলাম'

২০২০ সালে করা বিতর্কিত টুইটের জেরে ৩০শে অগস্ট মুম্বই এয়ারপোর্ট থেকে গ্রেফতার হন কেআরকে। চিকিৎসার জন্য দুবাই থেকে মুম্বইয়ে ফিরেছিলেন কেআরকে, আর দেশের মাটিতে পা রাখা মাত্রই পুলিশের জালে ধরা পড়েন। জামিনে মুক্ত কেআরকে এদিন নিজের বিরোধিদের উদ্দেশে লিখলেন, ‘আমি নিজের প্রতিশোধ নিতে ফিরে এলাম’। কেআরকে-র এই টুইট দেখে বেশ কিছু তাঁর অনুরাগীরা। অনেকেই কমেন্ট করে লেখেন, ‘আপনার কাছ থেকে ব্রহ্মাস্ত্র-এর রিভিউ দেখতে চাই, আর অপেক্ষা করতে পারছি না’।

কেআরকে-র টুইট
কেআরকে-র টুইট

কেন গ্রেফতার হন কেআরকে?

২০২০ সালে বলিউড অভিনেতা অক্ষয় কুমার এবং রাম গোপাল বর্মাকে নিয়ে করা অবমাননাকর টুইটের জেরে গ্রেফতার হয়েছিলেন কেআরকে। বিচারবিভাগীয় হেফাজতে থাকাকালীনই গত ৫ই সেপ্টেম্বর অপর এক মামলায় গ্রেফতার হন কেআরকে। ২০১৯ সালে এক মহিলার কাছে যৌন সুবিধা চাওয়ার অপরাধে দ্বিতীয়বার গ্রেফতার হলেন এই বিতর্কিত বলিউড ব্যক্তিত্ব।

কেআরকে-কে খুনের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ ছেলের!

কেআরকে-র জামিন মঞ্জুর হওয়ার পর ‘দেশদ্রোহী’ অভিনেতার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বিস্ফোরক টুইট করেছিল তাঁর ছেলে ফয়জল। দুটো টুইটের প্রথমটিতে সে জানায়, ‘আমি কেআরকে-র ছেলে ফয়জল কামাল খান। কিছু মানুষ ওঁনাকে টর্চার করছে, আমার বাবাকে মুম্বইয়ে মেরে ফেলতে চাইছে। আমার মাত্র ২৩ বছর বয়স, আমি লন্ডনে থাকি। আমি জানি না কীভাবে বাবাকে সাহায্য করব। আমি আবেদন জানাচ্ছি অভিষেক বচ্চন,রীতেশ দেশমুখ, দেবেন্দ্র ফড়নবীশ জি-কে আমার বাবার জীবনটা রক্ষা করুন। আমি ও আমার বোন ওঁনাকে ছাড়া মারা যাব’।

যৌন হেনস্থার মামলায় শর্তসাপেক্ষে জামিন পেয়েছেন কেআরকে। ১৫ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে মুক্তি দেওয়া হয় তাঁকে। প্রতি মাসের দ্বিতীয় ও চতুর্থ সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১১টায় থানায় সশরীরে হাজিরা দিতে হবে তাঁকে। পাশাপাশি অভিযোগকারিনীর সঙ্গে যোগাযোগের কোনওরকম চেষ্টা করবে না অভিযুক্ত, মামলা সম্পর্কিত তথ্য-প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করা যাবে না।

এতোকিছুর পরেও কেআরকে আছেন কেআরকে-তেই! আবারও বলিউড নিয়ে বিষোদগার করতে তৈরি ‘দেশদ্রোহী’ ছবির লিড অভিনেতা তথা প্রযোজক!

বন্ধ করুন