বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মন্দিরের রাস্তা বন্ধ করে বিয়ে, সানাই বাজার আগেই ‘ভিক্যাট’-এর নামে অভিযোগ দায়ের
বিয়ের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে অভিযোগ দায়ের করা হল 'ভিক্যাট' এর নামে। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
বিয়ের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে অভিযোগ দায়ের করা হল 'ভিক্যাট' এর নামে। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

মন্দিরের রাস্তা বন্ধ করে বিয়ে, সানাই বাজার আগেই ‘ভিক্যাট’-এর নামে অভিযোগ দায়ের

  • বিয়ের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করেই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ভিকি-ক্যাটের নামে!

ক্যাটরিনা কইফ এবং ভিকি কৌশলের পরিবারের অনেকেই ইতিমধ্যেই রওনা দিয়েছেন রাজস্থানের উদ্দেশ্যে।হবু বর-কণেকেও দেখা জেগেছে যোধপুরের বিমানবন্দরে। মরুরাজ্যের সোয়াই মাধোপুরের বারওয়ারা সিক্স সেন্সেস রিসর্টে বসছে ভিক্যাটের বিয়ের আসর। জানা গিয়েছে, আগামী ৬ থেকে ১১ তারিখ পর্যন্ত বারওয়ারা সিক্স সেন্সেস ফোর্টটি বুক করা হয়েছে ভিকি-ক্যাটরিনার তরফে। এতদূর পর্যন্ত সব ঠিকঠাকই ছিল। এবার জানা গেল, এই বিয়ের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করেই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ভিকি-ক্যাটের নামে!

ভিকি-ক্যাটের বিয়েতে দু-দিন আগেই শিলমোহর দিয়ে দিয়েছে রাজস্থান প্রশাসন। এই বিগ ফ্যাট ওয়েডিং এর আগে গত শুক্রবার সাওয়াই মাধোপুর জেলা প্রশাসনের তরফে। সুষ্ঠুভাবে আয়োজন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও ভিড় নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা হয় ওই বৈঠকে। সওয়াই মাধোপুর জেলা কালেক্টর রাজেন্দ্র কিষাণ ছাড়াও, সভায় সভাপতিত্ব করেন, পুলিশ সুপার রাজেশ সিং, পুলিশ আধিকারিক, বন আধিকারিক এবং হোটেল এবং ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থার প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, শুধু ভিকি-ক্যাটই নন, সিক্স সেন্সেস রিসর্টের ম্যানেজার এবং সওয়াই মাধোপুর জেলা কালেক্টরের নামেও মামলা দায়ের করেছেন নেত্রবিন্দু সিং যাদয়া নামের এক রাজস্থাননিবাসী উকিল। অভিযোগ, ভিকি-ক্যাটদের বিয়ের অনুষ্ঠানের দরুণ একটি নির্দিষ্ট রাস্তা বন্ধ করা হয়েছে। অথচ সেই রাস্তা সোজা যাচ্ছে চৌথ কা বারওয়াড়া নামের এক মন্দির পর্যন্ত, যেখানে নিয়মিত ভক্ত ও প্রচুর দর্শনার্থী জড়ো হয়।

দায়ের করা ওই অভিযোগে সেই উকিল জানিয়েছেন যে ভিকি-ক্যাটের বিয়ের অনুষ্ঠান নিয়ে তাঁর বিন্দুমাত্র কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু এই দুই বলি-তারকা তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠানের দরুণ যে রাস্তাটি ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দিয়েছেন তার ফলে প্রতিদিন প্রচুর মানুষের অসুবিধে হচ্ছে সেই মন্দিরে পৌঁছতে, যা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। জানা গেছে, আগামী ৬ দিন এই রাস্তা বন্ধ থাকার কথা। তাতে সাধারণ মানুষের পক্ষে ওই মন্দিরে যাওয়া আরও কঠিন হয়ে পড়বে। তাই তাঁর দাবি ভক্তদের জন্য মন্দিরে যাওয়ার রাস্তা যেন খোলা রাখা হয়।

বন্ধ করুন