অমিতাভ বচ্চন (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
অমিতাভ বচ্চন (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

অমিতাভ বচ্চন কি দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে চান? জানুন বিগ বি-র জবাব

  • বচ্চন অনুরাগীর মনের এই প্রশ্নের কী জবাব দিলেন বিগ বি? জানলে অবাক হবেন।

প্রতি রবিবার জলসার বাইরে অগুনতি ভক্তদের সঙ্গে দেখা করতেন অমিতাভ বচ্চন। কিন্তু করোনার জেরে এখন সেই নিয়মে সাময়িক ছেদ পড়েছে। তাই আপতত অনলাইলেন ফ্যানেদের সঙ্গে আলাপচারিতা সারছেন বিগ বি। নিজের ইনস্টাগ্রামে পোস্টে ফ্যানেদের কমেন্টের জবাব দিচ্ছেন শাহেনশা।

সম্প্রতি অমিতাভের এক পোস্টে এক বচ্চন ভক্তের প্রশ্ন, স্যার আপনি কি কখনও দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে চান? জবাবে মজাদার উত্তর দেন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। তিনি লেখেন, ‘আরে ভাই সকাল সকাল শুভ কথাবার্তা বল’।

বিগ বি-র মজাদার জবাব
বিগ বি-র মজাদার জবাব

প্রসঙ্গত, রাজনীতিতে অমিতাভের অভিজ্ঞতা খুব একটা সুখকর নয়, এমনটা বলা যেতেই পারে। ১৯৮৪ সালে কংগ্রেসের টিকিটে নিজের জন্মভূমি এলাহাবাদ (বর্তমানে প্রয়াগরাজ) থেকে লোকসভা নির্বাচনে লড়াই করে ছিলেন অমিতাভ। ব্যাপক ভোটে জয়ী হন বিগ বি। কিন্তু মাত্র তিন বছর পরেই নিজের সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দেন অমিতাভ বচ্চন। এবং রাজনীতিকে ‘নোংরা জয়গা’ বলে মন্তব্য করেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অন্যতম অ্যাক্টিভ তারকা অমিতাভ। টুইটার তাঁর সবচেয়ে পছন্দের মাধ্যম হলেও ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামেও শাহেনশার উজ্বল উপস্থিতি। পাশাপাশি নিয়মিত ব্লগ লেখেন তিনি। শুক্রবারই অমিতাভ বচ্চনের ব্লগ ১২ বছর পূর্ণ করল। ২০০৮ সালের ১৭ এপ্রিল ব্লগ লেখা শুরু করেছিলেন বিগ বি। দেখতে দেখতে এতগুলো বছর পার করে ফেললেন অভিনেতা। তিনি নিজেও হতবাক মানুষজন তাঁর লেখা পড়ার জন্য এত সময় নষ্ট কীভাবে করে থাকে! তিনি টুইটারে লেখেন, অভাবনীয়! সত্যি পুরোপুরি অবিশ্বাস্য.. মানে আমার জন্য নয়, আপনাদের জন্য... কীভাবে একটানা ১২ বছর ধরে আমাকে সহ্য করছেন আপনারা!


লকডাউনের সময় পুরোনো দিনের স্মৃতিচারণায় মশগুল অভিনেতা। শেয়ার করে নিচ্ছেন পুরোনো অ্যালবামের একাধিক ছবি। বক্স অফিসে অমিতাভের আসন্ন ছবি হতে চলেছে সুজিত সরকারের গুলাবো সিতাবো। যেখানে এক বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়ার সম্পর্কের গল্প ফুটে উঠবে। ছবিতে অমিতাভ ছাড়া লিড রোলে রয়েছেন আয়ুষ্মান খুরানা।


বন্ধ করুন