বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ফেসবুকে রুদ্রনীল ঘোষের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক তরুণী!
রুদ্রনীল ঘোষ। ছবি সৌজন্যে - ট্যুইটার
রুদ্রনীল ঘোষ। ছবি সৌজন্যে - ট্যুইটার

ফেসবুকে রুদ্রনীল ঘোষের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক তরুণী!

  • রাজ্যের বিধানসভার নির্বাচনে হারার পর এবার গুরুতর অভিযোগ রুদ্রনীল ঘোষের বিরুদ্ধে। ফেসবুকে এক তরুণী রুদ্রনীলের সম্পর্কে বিস্ফোরক পোস্ট করেছেন যা মুহূর্তে হয়েছে ভাইরাল।

বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে রাজ্যে ফের ক্ষমতায় ফিরেছে তৃণমূল। ভবানীপুরে বিজেপির হয়ে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন রুদ্রনীল। তবে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বিদায়ী মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছে প্রচুর ভোটে হেরেছেন তিনি। এবার ফের চর্চায় রুদ্রনীল ঘোষ। ফের বিতর্কের কেন্দ্রে তিনি। এবার এই অভিনেতা তথা রাজনীতিবিদের বিরুদ্ধে একটি বিস্ফোরক পোস্ট করলেন এক তরুণী। ওই পোস্টের মাধ্যমে তাঁর দাবি,কয়েক বছর আগে রুদ্রনীল ঘোষের কু-প্রস্তাব নামায় তাঁকে অভিনেতার প্রোডাকশন হাউজ থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি তাঁর কাজের প্রাপ্য টাকাও দেওয়া হয়নি।এরপর সরাসরি ওই পোস্টে রুদ্রনীলের উদ্দেশে অভিযুক্তকারিণীর তোপ,' তুমি হেরেছ বলে তোমার শহর হাওড়া গর্বিত,আনন্দিত। তোমার শহর হাওড়াও তোমাকে তাঁর সন্তান বলতে ঘৃণা বোধ করে।'

এখানেই না থেমে  কড়া ভাষায় রুদ্রনীলকে অভিযুক্তকারিণীর তোপ,'আজ রুদ্রনীল ঘোষ পরাজিত। রুদ্রনীলের পতনের সবে শুরু হয়েছে।' এখানেই না থেমে তিনি আরও লিখেছেন,' এই পোস্টের কথা জানার পর তুমি সাইবার ক্রাইম সেলে যাও, আমার বিরুদ্ধে মামলা করো, আমি সেসবের পরোয়া করি না। কিন্তু মনে রেখো, এই তোমার পতনের শুরু'। তা কেন এতদিন পর রুদ্রনীলের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনছেন? কেন আগে মুখ খোলেননি তিনি? এই প্রশ্নেরও জবাব দিয়েছেন তরুণী  নিজেই। ফেসবুকে লিখেছেন,' আজ প্রশ্ন উঠতে পারে কেন এতদিন ন্যায়বিচার চাইনি? সেদিন ভয় পাইনি। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রিতে নিউকামার ছিলাম,কিভাবে এগোতে হবে জানতাম না। ঘৃণাবশতঃ রুদ্র-র নোংরা মেসেজ মোবাইল থেকে ডিলিট করে দিয়েছিলাম। ফলে প্রমাণ ছিল না।' নিজের বক্তব্যের শেষে তাঁর সংযোজন,'প্রকৃত পুরুষ সে, যে নারীত্বকে সম্মান প্রদর্শন করে। রুদ্রনীলের পতনের সবে শুরু হয়েছে। রুদ্রনীল যদি এই পোস্ট দেখে বা তাকে যদি আমার পরিচিত কেউ এই পোস্ট সম্পর্কে বলে, তাহলে আমিও শুনতে চাই রুদ্রনীল কিভাবে নিজেকে রক্ষা করার জন্য সাফাই দেবে। এই পোস্টে আজ আমি কাউকে ট‍্যাগ করব না।'যদিও এখনও পর্যন্ত এই অভিযোগের ব্যাপারে পাল্টা কোনও মন্তব্য করেননি রুদ্রনীল।

বন্ধ করুন