বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aamir Khan: সত্যি কি নাক উঁচু স্বভাবের কারণে বলি-পার্টিতে যান না আমির? ফাঁস করলেন নিজেই
কেন বলিউডের পার্চিতে যান না আমির খান?

Aamir Khan: সত্যি কি নাক উঁচু স্বভাবের কারণে বলি-পার্টিতে যান না আমির? ফাঁস করলেন নিজেই

দিনকয়েক আগে ছবির প্রচারে করণ জোহরের ‘কফি উইথ করণ’-এ এসেছিলেন আমির খান। সেখানেই জানালেন তিনি কেন থাকেন না বলিউডের কোনও পার্টিতে। 

আপাতত সব জায়গায় চর্চা আমির খানকে নিয়ে। আর হবে নাই বা কেন! আসছে যে ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’-এর নতুন সিনেমা লাল সিং চাড্ডা। এই ছবিতে রয়েছেন করিনা কাপুরও। দিনকয়েক আগে ছবির প্রচারে করণ জোহরের ‘কফি উইথ করণ’-এ এসেছিলেন। 

হলিউডের বিখ্যাত ছবি ‘ফরেস্ট গাম্প’-এর হিন্দি রিমেক লাল সিং চাড্ডা। বছরখানেক ধরে করোনা আর লকডাউনের কারণে বারবার পিছিয়েছে ছবির মুক্তি। অবশেষে ১১ অগস্ট আসছে সেই বহু প্রতীক্ষিত দিনটা। 

তবে আমিরের সিনেমা যতই হিট করুক না কেন, বলিউডের অন্দরের সব পার্টিতে কিন্তু আমির থাকেন না বললেই চলে! এই নিয়ে নানা গুজবও রয়েছে। কারও মতে নাকউঁচু আমিরের নাকি একেবারেই পছন্দ না ফিল্মি পার্টি। তাই চেষ্টা করেন এরিয়ে যেতে। আরও পড়ুন: সিনেমা ফ্লপ করলে তারকাদের কি কম বেতন নেওয়া উচিত? আলিয়ার জবাব অবাক করবে

করণ শো-তে বলেন, ‘যখনই ২০০ লোকের পার্টি থাকে, আমির পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়’। যদিও আমির মেনেই নেন তিনি মোটেও ‘পার্টি লাভার’ নয়, বরং পার্টিতে এক কোণায় বসে থাকতেই পছন্দ করেন, গুটিকয়েক বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে। আমিরের কথায়, ‘এত জোরে জোরে গান বাজে। আপনি শুধু দেখতে পারবেন সবার গলার শিরাগুলো ফুলে ফুলে উঠছে, কারণ তাঁদের এত জোরে কথা বলতে হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, কফি উইথ করণের ৭ নম্বর সিজনের পঞ্চম এপিসোডে এসেছিলেন আমির-করিনা। আর তার প্রোমো-তে দেখা গিয়েছিল করণ প্রশ্ন করছেন করিনাকে বাচ্চা হওয়ার পর সেক্স লাইফ কেমন থাকে! আর তাতে করিনার জবাব, এটা তো করণে তোমারও জানা উচিত। কারণ তাঁর যে যমজ সন্তান (যশ আর রুহি) আছে। আর তাতে জবাব আসে, ‘আমার মা এই শো দেখছে আমি আমার সেক্স লাইফ নিয়ে কথা বলতে পারব না’। আর এতেই ট্রোল করে আমিরের প্রশ্ন, ‘তুমি অন্যের সেক্স লাইফ নিয়ে প্রশ্ন করলে তোমার মা রাগ করে না? কীসব প্রশ্ন করছে…’ আরও পড়ুন: ‘হিরো রাত ৩টেয় ডাকলেও যেতে হবে’, কোন বলিউড নায়ককে ইঙ্গিত করলেন মল্লিকা শেরাওয়াত?

এদিকে আবার আমির খান ও তাঁর সিনেমা ‘লাল সিং চাড্ডা’ বয়কট করার দাবি উঠেছে টুইটারে। ২০১৮ সালে আমিরের বলা ‘ভারতের সহনশীলতা ক্রমশ কমে যাচ্ছে’ মন্তব্যকে ঘিরেই ফের জলঘোলা। আমির মিডিয়াকে এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘আমার এটা ভেবে আরও খারাপ লাগে যে এই ধরনের প্রচার যারা করছে তাঁরা অনেকেই মনে মনে বিশ্বাস করে আমি ভারতবর্ষকে ভালোবাসি না। এটা সত্যি নয়। বরং ভুল, মিথ্যে। দয়া করে আমার ছবি বয়কট করবেন না। দয়া করে দেখুন ছবিখানা।’

 

বন্ধ করুন