বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মাদককাণ্ডে অর্জুন রামপালকে ফের তলব এনসিবির, আগামিকাল জেরার মুখে অভিনেতা
অর্জুন রামপাল (ফাইল ছবি)
অর্জুন রামপাল (ফাইল ছবি)

মাদককাণ্ডে অর্জুন রামপালকে ফের তলব এনসিবির, আগামিকাল জেরার মুখে অভিনেতা

  • গত ১৩ নভেম্বর সাত ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল অর্জুন রামপালকে। মাদককাণ্ডে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেন অভিনেতা। 

মুম্বই : মাদককাণ্ডে ফের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর জেরার মুখে পড়তে হবে অভিনেতা অর্জুন রামপালকে। এই মামলায় আগেই এনসিবির ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়েছেন তারকা। শুধু অর্জুনই নয়, তাঁর সঙ্গী তথা সন্তানের মা গ্যাব্রিয়েলা ডিমিট্রিয়াডিসকেও দু-বার জেরা করেছে দেশের কেন্দ্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রক সংস্থা। 

মাদককাণ্ডে গত কয়েকমাস ধরেই এনসিবির কড়া নজরদারিতে রয়েছেন এই বলিউড অভিনেতা ও তাঁর পরিবার। অক্টোবর মাসে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর হাতে প্রথম গ্রেফতার হয় গ্যাব্রিয়েলা ডেমেট্রিয়াডেসের ভাই অ্যাগিসিলাওস। অর্জুনকে ফের সমন পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নতুন তথ্য-প্রমাণ উঠে আসায়, তার ভিত্তিতে অর্জুন রামপালকে আবারও জেরা করা হবে। জানা গিয়েছে ১৬ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার ডেকে পাঠানো হয়েছে অর্জুনকে। 

গতমাসে অর্জুন রামপালের বাড়িতে হানা দেয় এনসিবির আধিকারিকরা। সেখান থেকে ১১টি বৈদ্যুতিন গ্যাজেট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, বেশ কয়েকটি নিষিদ্ধ ওষুধও নাকি বাজেয়াপ্ত করা হয়। তারপর ১৩ তারিখ অর্জুনকে সাত ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করে এনসিবির আধিকারিকরা। 

গ্যাব্রিয়েলার ভাই ডেমেট্রিয়াডেসের সঙ্গে একাধিক মাদক পাচারকারীর যোগসাজশের হদিশ পেয়েছে এনসিবি। বলিউডের একাধিক তারকাকে মাদক পাচার করত ডেমেট্রিয়াডেস, মনে করছে  এনসিবি। গত ১৮ অক্টোবর হাশিশসহ গ্রেফতার হন ডেমেট্রিয়াডেস। তার কাছে থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল অ্যালপারাজোলাম (এক ধরণের নিষিদ্ধ ট্যাবলেট)। জানা গিয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুত মামলার সঙ্গে জড়িত মাদক পাচারকারীদের সঙ্গে সরাসরি যোগ রয়েছে অ্যাগিসিলাওসের। নভেম্বরের শুরুতে জামিনে ছাড়া পেয়েছিল অ্যাগিসিলাওস। তবে মুক্তির কয়েকঘন্টার মধ্যেই অপর এক মাদককাণ্ডে ফের অ্যাগিসিলাওসকে হেফাজতে নেই নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো।

ইলেকট্রনিক প্রমাণ থেকে জানা গিয়েছে ডেমেট্রিয়াডেসের যোগাযোগ ছিল সুশান্তের বাড়ির দুই পরিচারক দীপেশ সাওয়ান্ত ও স্যামুয়েল মিরান্ডার সঙ্গে, দুজনের সঙ্গেই নাম জড়িয়েছে সুশান্ত মামলার দুই মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী ও শৌভিক চক্রবর্তীর। সুশান্তের মৃত্যুর দিন ওই বাড়িতেই ছিলেন দীপেশ। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত আর্থিক তছরুপের মামলা খতিয়ে দেখতে গিয়ে জুলাই মাসে ইডির হাতে রিয়ার মাদকযোগের তথ্য আসে। এরপর ইডির ডাকে সারা দিয়ে এই মামলায় যোগ দেয় কেন্দ্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রক সংস্থা। তারপর থেকেই বলিউডের মাদককাণ্ড নিয়ে সরগরম গোটা দেশ। মাদকাকাণ্ডে প্রায় এক মাস বাইকুল্লা জেলেবন্দি থাকতে হয়েছে রিয়া চক্রবর্তীকে। অভিনেত্রীর ভাই শৌভিক প্রায় তিন মাস তালোজা জেলেবন্দি থাকার পর জামিনে ছাড়া পান গত ২রা ডিসেম্বর। এই মামলায় ইতিমধ্যেই এনসিবি জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দীপিকা পাড়ুকোন, সারা আলি খান, শ্রদ্ধা কাপুর, রকুল প্রীত সিংয়ের মতো বলিউড নায়িকাদের।

বন্ধ করুন