বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > প্রাক্তন প্রেমিকার সাথে ঘনিষ্ঠ ছবি ফেসবুকে দিলেন পরিচালক! রেগে আগুন 'রাজা' রাহুল
রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়।(ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)

প্রাক্তন প্রেমিকার সাথে ঘনিষ্ঠ ছবি ফেসবুকে দিলেন পরিচালক! রেগে আগুন 'রাজা' রাহুল

এবার প্রকাশ্যে পরিচালক জয়দীপ রাউতের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন রাহুল। আনলেন কিছু গুরুতর অভিযোগ।

বরাবরই সোজাসাপ্টা মন্তব্য করতে পছন্দ করেন রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়। সে রাজনৈতিক হোক কিংবা পেশাগত বিষয়। এবার এক পরিচালকের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন এই জনপ্রিয় টলি-অভিনেতা। আনলেন কিছু গুরুতর অভিযোগ। রাহুল অভিনীত আড্ডা টাইমসের ওয়েব সিরিজ ‘অলৌকিক’-এর পরিচালক ছিলেন জয়দীপ রাউত। তাঁর বিরুদ্ধেই অভিনেতার সমস্ত অভিযোগ। এবং সেসব তিনি নির্মেদভাবে কাটা,কাটা বাক্যে ফেসবুকে লিখেছেন। এই নিয়ে এবার সরব হয়েছেন কথা নিজেও। ফেসবুকে রাহুলের ওই পোস্টটি শেয়ার করে অভিনেতাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। এই প্রসঙ্গে কথার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জয়দীপের ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করতে তিনি চাননি। শুধু বলেছেন, 'আমি ভীষণ বীতশ্রদ্ধ গোটা ব্যাপারে। অত্যন্ত মর্মাহত। আমার কাছে এটি এখনও ব্যক্তিগত বিষয়। যদিও আগল খুলে গেছে। এবং তা শুরু করেছেন জয়দীপ-ই!'

জয়দীপ রাউত।(ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)
জয়দীপ রাউত।(ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)

রাহুলের অভিযোগ, ওই সিরিজের প্রধান অভিনেত্রী কথা নন্দীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন পরিচালক জয়দীপ। 'অলৌকিক'-এর শ্যুটিং করাকালীনই বিষয়টি বুঝতে পারেন রাহুল। তবে এখন কথার সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর কথার সঙ্গে তাঁর অন্তঃরঙ্গ, ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে অভিনেত্রীকে ডিজিট্যাল শেমিং করার অনবরত চেষ্টা করছেন জয়দীপ! পরিচালকের বিরুদ্ধে রাহুলের এমন চাঞ্চল্যকর অভিযোগ আনার পরই নড়েচড়ে বসেছে টলিপাড়া।

ফেসবুকে কথার সঙ্গে জয়দীপ রাউতের করা একটি পোস্ট-এর ছবি আপলোড করে তার সঙ্গে নিজের অভিযোগগুলি করেছেন এই জনপ্রিয় অভিনেতা। ‘অনেক,অনেকদিন চুপ করে থাকার পর আজ লিখতে বাধ্য হচ্ছি...আমি Addatimes এর হয়ে একটি কাজ করেছিলাম,অলৌকিক। এই কাজটা করতে গিয়ে ওদের যে বিশেষ সম্পর্ক আছে তা জানতে পারি। ঘটনাচক্রে জানিয়ে রাখা ভালো, কথা আমার চেয়ে ১২-১৩ বছরের ছোট। জয়দীপ আমার চেয়ে বছর দশেকের বড়। কিন্তু, প্রেমের ডাক এলে বয়স এবং অন্যান্য বাধা তুচ্ছ হয়ে যায়, তাই ও নিয়ে মাথা ঘামাইনি। জয়দীপ বিবাহিত, তাই ও কথাকে কোনও কমিটমেন্ট করতে পারেনি। দিনের পর দিন এই ভবিষ্যৎহীন সম্পর্কে ক্লান্ত হয়ে মেয়েটি বাধ্য হয়েই অন্য রাস্তা, অন্য বন্ধু বেছে নিয়েছে। সাথে সাথে জয়দীপের প্রেমিকের খোলস খুলে গিয়েছে। দিনের পর দিন, মাসের পর মাস ও কথার সাথে নিজের অন্তরঙ্গ ছবি শেয়ার করছে। ডিজিটাল শেমিং করছে। মেয়েটির ভবিষ্যৎ দুর্বিষহ করে তুলছে। ভেবেছিলাম এই কাদাতে ঢুকব না। কিন্তু কবি বলে পরিচয় দেওয়া একজন শুধুমাত্র প্রেম কেটে গিয়েছে বলে নিজের থেকে আড়াই দশক ছোট মেয়েকে দিনের পর দিন অত্যাচার করবে এটা কতদিন মুখ বুজে সহ্য করা যায়? কথা যদি হঠকারী কিছু করে ফেলে নিজের চুপ করে থাকার জন্য আমি নিজেকে ক্ষমা করতে পারব না...এই অমানুষটিকে চিনে রাখুন।’

প্রসঙ্গত, কথাকে নিয়ে এর আগে একটি শর্ট ফিল্মও পরিচালনা করেছিলেন জয়দীপ। নাম 'মল্লার যেখানে নামে'। সমালোচকদের তারিফও কুড়িয়েছিল সেই ছবি। জানা গেছে, পরিচালনার পাশাপাশি কবিতাও লেখেন জয়দীপ। কবি হিসেবে খ্যাতিও রয়েছে তাঁর। প্রকাশিত হয়েছে তাঁর সেই কবিতার বইও। বেশ কিছু বছর সাংবাদিকতাও করেছেন তিনি। তবে গত শনিবার ফেসবুকেই তিনি জানিয়েছিলেন যে আত্মহত্যার চেষ্টা করছেন তিনি। জয়দীপের বিরুদ্ধে বধূ নির্যাতনের অভিযোগও এনেছেন তাঁর স্ত্রী।

বন্ধ করুন