বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > আসলে মাথার ওপর নতুন ছাদ জুটেছিল, ছাদের নাম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়: রাহুল
সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়-রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়

আসলে মাথার ওপর নতুন ছাদ জুটেছিল, ছাদের নাম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়: রাহুল

  • সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে উত্সর্গ করে নিজে একটি কবিতা লিখেছেন অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে পড়ে শোনালেন।

ভারতের অন্যতম সেরা অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বাংলার গর্ব, বাঙালির গর্ব। দীর্ঘ সময় ধরে ভারতীয় ক্রিকেটে বাংলার প্রতিনিধিত্ব করেছেন। অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাত ধরেই ভারতের ক্রিকেট পৌঁছে গিয়েছে নতুন উচ্চতায়। এখন তিনি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। শত ব্যস্ততার ফাঁকেও সঞ্চালক হিসেবে ফিরেছেন ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে।

বেশ জনপ্রিয় দাদার এই গেম শো। শুরু থেকেই টিআরপি তালিকায় নিজেদের জায়গা ধরে রেখেছে। জনসাধারণ থেকে তারকা সমাবেশ দেখা যায় ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে। সম্প্রতি দাদাগিগির মঞ্চে হাজির হয়েছিলেন একগুচ্ছ তারকা। সেখানে পুরুলিয়ার হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়। দাদাকে উত্সর্গ করে নিজে একটি কবিতা লিখেছেন রাহুল। সেই কবিতাই মঞ্চে পড়ে শোনান। 

২০০২ সালের ১৩ জুলাই দিনটি ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য অত্যন্ত বিশেষ বলে প্রমাণিত হয়েছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্যই। এই দিনই, ন্যাটওয়েস্ট সিরিজের ফাইনালে ইংল্যান্ডকে পরাজিত করে টিম ইন্ডিয়া। জয়ের পরে অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গোপাধ্যায়ের ঐতিহাসিক লর্ডসের ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে জার্সি খুলে ওড়ানো মুহূর্তটা এখনও টাটকা। 

উনিশ বছর আগের এই দিনটা ভারতীয় ক্রিকেটে এখনও আলোড়ন ফেলে। অবিশ্বাস্য জয় পাওয়াই নয়, একটা চিরস্মরণীয় সেলিব্রেশন ছিল। এরপর দাদার একের পর এক কৃতিত্ব। সেই ছোট্টবেলার গল্প নিজের কবিতার মাধ্যমে ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে উপস্থাপন করলেন রাহুল। তাঁর কবিতা শুনে মুগ্ধ সৌরভও। সোশ্যাল মিডিয়াতেও রীতিমতো প্রশংসা কুড়োচ্ছে রাহুলের লেখা এই কবিতা।

 

 

বন্ধ করুন