বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সোনু সুদ প্রতারক! হাসপাতালের রসিদ পোস্ট করে নিন্দুকদের জবাব অভিনেতার
পীড়িতদের সাহায্য করাল নিয়ে সোনু সুদের অবদান নিয়ে প্রশ্ন তুলল সমালোচক।
পীড়িতদের সাহায্য করাল নিয়ে সোনু সুদের অবদান নিয়ে প্রশ্ন তুলল সমালোচক।

সোনু সুদ প্রতারক! হাসপাতালের রসিদ পোস্ট করে নিন্দুকদের জবাব অভিনেতার

  • অভিযোগ, সাহায্যপ্রার্থীর টুইটার অ্যাকাউন্টটি ভুয়ো। তার উল্লেখ করে শুধুমাত্র জনসংযোগের স্বার্থে প্রচার করেছেন সোনু সুদ।

লকডাউনে ঘরমুখী পরিযায়ী শ্রমিকদের পরিত্রাতা রূপে অবতীর্ণ হওয়ার পরে সম্প্রতি শিক্ষার্থী, রোগী ও অন্যান্যদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন অভিনেতা সোনু সুদ। তবু তাঁর কাজে সমালোচকের সংখ্যা কম নয়। 

কিছু দিন আগে টুইটারে এক ব্যক্তি তাঁর অসুস্থ শিশু স্নেহলকে সাহায্যের আর্জি জানিয়ে সোনুর সাহায্য চান। সঙ্গে সঙ্গে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি সহ জবাব দেন অভিনেতা। এবার সেই টুইটারেই তাঁর নামে কুৎসা রটাতে উদ্যোগী হয়েছেন আর এক ব্যক্তি। 

তাঁর অভিযোগ, স্লেহলের বাবার টুইটার অ্যাকাউন্টটি ভুয়ো। সেই ভুয়ো অ্যাকাউন্ট উল্লেখ করে শুধুমাত্র জনসংযোগের স্বার্থে প্রচার করছেন সোনু সুদ। বলা হয়েছে, ‘নতুন টুইটার অ্যাকাউন্ট, যার শুধু ২-৩ জন ফলোয়ার, সোনু সুদকে ট্যাগ না করলেও এবং কোনও লোকেশন বা কনট্যাক্ট ডিটেলস অথবা ই মেল অ্যাড্রেস উল্লেখ না করা সত্ত্বেও সোনু তাঁকে খুঁজে বের করে সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এর আগেও যাঁরা সাহায্য চেয়েছিলেন, তাঁদের মধ্যে অধিকাংশই পরে অ্যাকাউন্ট ডিলিট করে দিয়েছেন। এ ভাবেই পিআর টিম কাজ করে।’

অভিযোগের কোনও সরাসরি জবাব না দিলেও একাধিক রসিদ পোস্ট করে তাঁর সাহায্যের ফিরিস্তি দাখিল করেছেন অভিনেতা। একটি টুইটে তিনি এক হাসপাতালের শিশু বিভাগে অস্ত্রোপচারের তালিকার স্ক্রিনশট শেয়ার করেছেন, যৈাতে স্নেহলের নাম রয়েছে। অন্য এক টুইটে হাসপাতালে দেড় বছরের শিশুর নানান শারীরিক পরীক্ষার রসিদ তিনি শেয়ার করেছেন। 

পরে তিনি আবার টুইট করে লেখেন, ‘এটাই সবচেয়ে ভালো জিনিস ভাই। আমি পীড়িতদের খুঁজে বের করি এবং তারাও যেন কী ভাবে আমাকে খুঁজে পায়। আসলে এ সবই ইচ্ছার ব্যাপার, তবে আপনার বোঝা সম্ভব নয়। আগামিকাল এসআরসিসি হাসপাতালে ভরতি রোগীর প্রতি নিজের কর্তব্য পালন করুন। ওকে কিছু ফল পাঠাতে পারেন। মাত্র ২-৩ জন ফলোয়ার পাওয়া মানুষ অসংখ্য ফলোয়ার পাওয়া মানুষের ভালোবাসা পেলে খুশি হবে।’

এতেও অবশ্য অভিযোগকারীকে সন্তুষ্ট করতে পারেননি সোনু। পোস্ট করা হাসপাতালের রসিদ ঘেঁটে দেখেতিনি ফের অভিযোগ করেছেন, ‘একবার তারিখগুলি দেখুন। রিপোর্ট পাওয়া গিয়েছে ১৭ সেপ্টেম্বর অস্ত্রোপচার করা হয়েছে ২৫ সেপ্টেম্বর। টুইট করা হয়েছে ২০ অক্টোবর। সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে ২০ অক্টোবর। আসলে তাঁকেই আপনি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যিনি একমাস আগে চিকিৎসা সম্পূর্ণ করেছেন। আপনার প্রতারণা ফাঁস করে দেওয়ার জন্য এবার নিজের পিআর টিমকে বিদায় করুন।’

এবার জবাব দিয়েছেন সোনুর ভক্তরা। তাঁদের দাবি, টুইট করার আগে হয়ত সাহায্যপ্রার্থী সরাসরি সোনুর কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন।

এ সব নিয়ে বেশি মাথা ঘামানোর অশ্য সময় নেই সোনু সুদের। তিনি যথারীতি ফের পীড়িতদের সাহায্য করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

বন্ধ করুন