বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > করোনা পজিটিভ, এ কথা জেনে কেঁদে ফেলেছিলেন ‘পুটুপিসি’ দেলনাজ ইরানি, কেন জানেন?
দেলনাজ ইরানি
দেলনাজ ইরানি

করোনা পজিটিভ, এ কথা জেনে কেঁদে ফেলেছিলেন ‘পুটুপিসি’ দেলনাজ ইরানি, কেন জানেন?

  • শ্যুটিং ফ্লোরে যাওয়া হবে না, এই ভাবনাতেই মন খারাপ দেলনাজের। 

বলিউড পেরিয়ে এবার করোনার থাবা হিন্দি টেলিভিশন জগতেও। এবার করোনার কোপে পড়লেন অভিনেত্রী দেলনাজ ইরানি। শীঘ্রই স্টার প্লাসের আসন্ন ধারাবাহিক ‘কভি কভি ইত্তেফাক সে’তে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন দেলনাজ। শনিবারই অসুস্থবোধ করায় কোভিড পরীক্ষা করিয়েছিলেন তিনি, রবিবার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।  তিনি জানিয়েছেন, ‘আমি ৩০ তারিখ পর্যন্ত শ্যুটিং করেছি। পরের দু-দিন ছুটি ছিল। ৩১ তারিখ আমার কাঁপুনি দিচ্ছিল, এরপর জ্বর আসে, সঙ্গে প্রচন্ড গায়ে যন্ত্রণা। পারসি (দেলনাজের প্রেমিক) আর আমি দুজনেই পরীক্ষা করানোর সিদ্ধান্ত নিই। ওর রিপোর্ট নেগেটিভ তবে আমার পজিটিভ’। 

এমন খারাপভাবে নতুন বছরটা শুরু হওয়ার একটু মন খারাপ দেলনাজের। তবে তিনি আশাবাদী শীঘ্রই সব ঠিক হয়ে যাবে। অভিনেত্রী জানিয়েছেন শ্যুটিংয়ের সময় সব সতর্কতা মেনে চলেছেন তিনি। ক্যামেরার সামনে শট দেওয়া ছাড়া মাস্কে মুখ ঢেকে রাখা,সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা- সবই করেছেন কিন্তু তাও করোনার গ্রাসে। 

দেলনাজ জানালেন,'আমি অনেক দিন পর টেলিভিশনে ফিরছি। সবকিছু পারফেক্ট, এই সিরিয়ালটা আমার চরিত্রটা। কিন্তু কথা আছে না সব পারফেক্ট হলে কারুর নজর লেগে যায়। তেমনটাই ঘটছে, হয়ত আমার নিজের নজরই লেগে গেছে'। করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার কেঁদে ফেলেছিলেন দেলনাজ। সিরিয়ালের সেট থেকে দূরে থাকতে হবে এর জন্যই কান্না। তবে সিরিয়ালের প্রযোজকরা তাঁর নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছেন বলে জানান অভিনেত্রী। যোগ করেন, ‘ভাগ্যিস আমাদের ১২-১৩টা এপিসোড জমা রয়েছে। এর জন্য আমি কিছুদিন অন্তত আরাম করতে পারব। আমার সব সহকর্মীরা খোঁজ নিচ্ছে। আমি খুব জলদি ফিরব’। 

জানেন কি জনপ্রিয় বাংলা ধারাবাহিক ‘খড়কুটো’র হিন্দি রিমেক ‘কভি কভি ইত্তেফাক সে’। অনুভব-গুনগুনের অভিনব প্রেমের গল্প উঠে আসবে এই ধারাবাহিকে। সৌজন্যর নাম বদলে গেলেও গুনগুনের চরিত্রের নাম একই থাকছে। পুটুপিসি অর্থাত্ সোহিনী সেনগুপ্ত যে চরিত্রে অভিনয় করেন সেই ভূমিকায় এই সিরিয়ালে দেখা যাবে দেলনাজকে। 

 

বন্ধ করুন