বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'নোংরা মেসেজগুলো দেখে দু'রাত ঘুমোতে পারিনি', ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা জানালেন নুসরত
ছবির বিষয়ের জন্য কটাক্ষের মুখে নুসরত।

'নোংরা মেসেজগুলো দেখে দু'রাত ঘুমোতে পারিনি', ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা জানালেন নুসরত

  • পরিচালক রাজ শাণ্ডিল্য়ের 'জনহিত মে জারি'তে এক কন্ডোম বিক্রেতার ভূমিকায় দেখা গিয়েছে নুসরতকে। পর্দায় ছক ভাঙার সিদ্ধান্ত নিতেই কুমন্তব্যের শিকার অভিনেত্রী। নেতিবাচকতা ঘিরে ধরে তাঁকে।

সমাজ সচেতনতামূলক ছবি করেছিলেন। চেয়েছিলেন সতর্কবার্তা ছড়িয়ে দিতে। কিন্তু হিতে বিপরীত! উল্টে অভিনেত্রী নুসরত ভারুচার গায়েই কাদা ছোড়া হল। ধেয়ে এল কটাক্ষ, কটূক্তি।

পরিচালক রাজ শাণ্ডিল্য়ের 'জনহিত মে জারি'তে এক কন্ডোম বিক্রেতার ভূমিকায় দেখা গিয়েছে নুসরতকে। পর্দায় ছক ভাঙার সিদ্ধান্ত নিতেই কুমন্তব্যের শিকার অভিনেত্রী। নেতিবাচকতা ঘিরে ধরে তাঁকে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন নুসরত। তিনি বলেন, 'এতই নোংরা মেসেজ পাঠানো হয়েছে যে, আমার সঙ্গে আমার পরিবার এবং বন্ধুবান্ধবরাও ভেঙে পড়ে। ওই মেসেজগুলোর কথা ভেবে দু'রাত ঘুমোতে পারিনি।'

প্রথমে যাবতীয় কুমন্তব্যকে এড়িয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন নুসরত। তার পর মত পাল্টান। তাঁর কথায়, 'ভেবেছিলাম, এ সব নিয়ে আর ভাবব না। ভুলে যাব। তার পর মনে হল, আমি গণতান্ত্রিক দেশে বাস করি। মত প্রকাশের অধিকার আমার আছে। নিজের কথা কেন বলব না?'

এই ছবি করতে গিয়ে এবং প্রচারের সময় একাধিক বার মুক্তমনা হওয়ার বার্তা দিয়েছেন নুসরত। কিন্তু দর্শক কি খোলা মনে গ্রহণ করেছে তাঁর 'জনহিত মে জারি'কে?

প্রথম সপ্তাহে ৩.৩৩ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে এই ছবি। শেষমেশ এই অঙ্ক কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, এখন সেটাই দেখার

বন্ধ করুন