বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সাহসী ছবি পোস্ট করে ট্রোলিংয়ের শিকার মিথিলা, বড় সিদ্ধান্ত নিলেন সৃজিত ঘরনি
মিথিলার বড় সিদ্ধান্ত 
মিথিলার বড় সিদ্ধান্ত 

সাহসী ছবি পোস্ট করে ট্রোলিংয়ের শিকার মিথিলা, বড় সিদ্ধান্ত নিলেন সৃজিত ঘরনি

  • সোশ্যাল মিডিয়ায় খোলামেলা ছবি পোস্ট করে কটাক্ষের শিকার মিথিলা, সম্প্রতি সাইবার বুলিংয়ের ক্ষেত্রে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছিলেন সৃজিত পত্নী। 

সাইবার বুলিং নিয়ে দিন কয়েক আগেই সরব হয়েছিলেন অভিনেত্রী, সমাজকর্মী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। এবার ফের নিজেই ট্রোলিংয়ের শিকার মিথিলা। সৌজন্যে দু-দিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা মিথিলার এক বোল্ড ছবি। সাদা-কালো সেই ছবিতে উন্মুক্ত ছিল মিথিলার বক্ষবিভাজিকা, আর সেই দেখেই উড়ে আসে নানান কটাক্ষ। ছবির ক্যাপশনে মিথিলা জুড়ে দেন উইলিয়াম আরনেস্ট হেনলির একটি উদ্ধৃতি- ‘আমি আমার ভাগ্যের নিয়ন্ত্রক, আমি আমার আত্মার অধিনায়ক'। উল্লেখ্য বুলিংয়ের মুখে পড়ে সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামের কমেন্ট সেকশনে বন্ধ করে দিয়েছেন মিথিলা। 

এই ছবি দেখেই টুইটারে একের পর অশ্লীল মন্তব্য ভেসে আসে। কেউ খারাপ ভাষা প্রয়োগ করেছে, কেউ আবার লিখেছেন- ‘একটা সময় মন থেকে পছন্দ করতাম, পছন্দের মানুষগুলা যখন অধপতনের দিকে যায় তখন কষ্ট হয়…’। তবে মিথিলার গুণমুদ্ধের সংখ্যাও কম নয়। তাঁরা অভিনেত্রী-সঞ্চালিকার রূপের প্রশংসার পাশাপাশি সমাজের কিছু মানুষের নীতি পুলিশির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর মানসিকতারও প্রশংসা করেছেন। 

ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নেটিজেনদের অতিরিক্ত উত্সাহ কিংবা হেনস্থা মোটেই কাঙ্খিত নন মনে করেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী। মিথিলার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় কম কাটাছেঁড়া চলেনি। তাহসানের সঙ্গে তাঁর ভাঙা বিয়ে, গত বছর নভেম্বরেই অন্তর্জালে পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে মিথিলার বেশকিছু ঘনিষ্ঠ ছবি ফাঁস হয়েছিল, এরপর সৃজিতকে বিয়ে করা নিয়েও ট্রোলড হয়েছেন মিথিলা। 

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে সাইবার বুলিং নিয়ে শান্ত অথচ দৃঢ় কণ্ঠে নিজের বক্তব্য রেখেছেন সৃজিত ঘরনি। মিথিলা বলেন, 'আমরা অনেকেই আছি যাঁরা অন্যের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে প্রচণ্ড উৎসাহ। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়াতে অন্যের বক্তিগত জীবন এবং ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত নিয়ে আজেবাজে কুরুচিকর কথা বলতে দ্বিধা বোধ করি না। সোশ্যাল মিডিয়াতে নারীকে উত্যক্ত করা, নারীর বিষয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা, এই বিষয় থেকে আমাদের বিরত থাকতে হবে'।

১ মিনিট ৯ সেকেন্ডের সেই ভিডিয়োতে মিথিলা সাফ জানান, শুধুমাত্র কোনও ব্যক্তির জীবনকে যে সিদ্ধান্ত প্রভাবিত করে সেই নিয়ে অন্য কারুর নাক না লগানোই বাঞ্ছনীয়। পৃথিবীকে আরও সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে অন্যের অনুভূতিকে প্রাধান্য দেওয়ার কথাও ভিডিয়ো বলতে শোনা গিয়েছে মিথিলাকে। 

বন্ধ করুন