দুর্ঘটনায় তুবড়ে যাওয়া শাবানা আজমির এসইউভি। ছবি সৌজন্যে টুইটার।
দুর্ঘটনায় তুবড়ে যাওয়া শাবানা আজমির এসইউভি। ছবি সৌজন্যে টুইটার।

পথদুর্ঘটনায় জখম শাবানা আজমি, ভরতি হাসপাতালে

  • দুর্ঘটনায় আহত শাবানাকে তড়িঘড়ি নভি মমুম্বইয়ের এমজিএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে এখনও সবিস্তারে কিছু জানাননি হাসপাতালের চিকিত্সকরা।

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হলেন প্রবীণ অভিনেত্রী শাবানা আজমি। শনিবার মুম্বই-পুনে এক্সপ্রেসওয়েতে খালাপুর টোল বুথের কাছে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তাঁর এসইউভি।

দুর্ঘটনায় আহত শাবানাকে তড়িঘড়ি কামোঠের এমজিএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম।চিকিত্সার পরে আপাতত তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।

দুর্ঘটনায় মুখে ও চোখে আঘাত লাগে বর্ষীয়ান অভিনেত্রীর।
দুর্ঘটনায় মুখে ও চোখে আঘাত লাগে বর্ষীয়ান অভিনেত্রীর।

জানা গিয়েছে, এ দিন বিকেল ৩.৩০ নাগাদ পুনে যাওয়ার পথে ওভারটেক করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি ট্রাকের পিছনে গিয়ে সজোরে ধাক্কা মারে তাঁর টাটা সাফারি। সংঘর্ষের মাত্রা এতটাই প্রবল ছিল যে গাড়ির সামনের অংশ সম্পূর্ণ তুবড়ে যেয়। ভেঙে যায় গাড়ির রেডিয়েটর ও বনেট।

শাবানাকে গাড়ি থেকে বের করার সময় তাঁর চোখ ফুলে যেতে দেখা গিয়েছে। আঘাত লেগেছে মুখের অন্য অংশেও।

সফরে সঙ্গী হলেও স্ত্রীর সঙ্গে ওই এসইউভিতে ছিলেন না শাবানার স্বামী কবি গীতিকার জাভেদ আখতার। তিনি পিছনে একটি অডিতে সফর করছিলেন।ফলে তিনি দুর্ঘটনার কবলে পড়েননি।

৬৯ বছর বয়েসি শাবানা আজমি ভারতীয় সিনেমায় তাঁর অসামান্য অবদানের জন্য ১৯৯৮ সালে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন। এ ছাড়া তিনি পাঁচ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন। একাধিক আন্তর্জাতিক পুরস্কারেও তিনি ভূষিত হয়েছেন। তাঁর অভিনীত ছবিগুলির মধ্যে বিশেষ প্রশংসিত হয়েছে অঙ্কুর, অর্থ, মান্ডি, পার, সতী প্রমুখ।

বন্ধ করুন