বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > একাধিকবার দুশ্চিন্তা গ্রাস করেছিল সানি লিওনের স্বামী ‘ডার্টি’ ড্যানিয়েল ওয়েবার
সানি লিওনে ও ড্যানিয়েল ওয়েবার। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
সানি লিওনে ও ড্যানিয়েল ওয়েবার। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

একাধিকবার দুশ্চিন্তা গ্রাস করেছিল সানি লিওনের স্বামী ‘ডার্টি’ ড্যানিয়েল ওয়েবার

করোনার মহামারীতে শুধু অর্থ সাহায্য করেই ক্ষান্ত হননি তিনি, মানসিক দিক থেকেও সুস্থ থাকার জন্য সাধারণের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। 

প্রায় দু বছর বছর ধরে গোটা পৃথিবীকে থমকে দিয়েছে করোনা। সাধারণ মানুষ থেকে তারকা, রাজনীতিবিদ কেউই বাঁচতে পারেননি এর হাত থেকে। কাজ বন্ধ থাকা, কাছের মানুষগুলোর সঙ্গে দেখা না হওয়া, ঘরবন্দি জীবনে আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের মতো হাঁপিয়ে উঠেছেন তারকারাও। কাছের মানুষদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনে তাঁরাও ভয় পেয়েছেন! সে প্রসঙ্গেই সম্প্রতি কথা বললেন ড্যানিয়েল ওয়েবার।

করোনার মহামারীতে আর পাঁচটা তারকার মতো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন সানি লিওনে ও ড্যানিয়েল ওয়েবারও। পরিবারের সঙ্গে খুশিতে সময় কাটালেও করোনা মহামারীতে দুশ্চিন্তা গ্রাস করেছিল তাঁকেও। সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ড্যানিয়েল জানান, করোনার সেকেন্ড ওয়েভ যখন শুরু হল, তখন মনে হল শুধু অর্থসাহায্য বা মহামারীর সময় প্রয়োজনীয় সামগ্রী লোকের হাতে তুলে দিলেই হবে না। আরও কিছু করতে হবে। ফের করোনা থাবা বসানোয় অনেকেই মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। তাঁদের পাশে দাঁড়াতে হবে। সবার কাছে আশার আলো পৌঁছে দিতে হবে।

করোনায় অবসাদ ও দুশ্চিন্তার শিকার হয়েছিলেন তিনিও। সে প্রসঙ্গে ড্যানিয়েল জানান, ‘আমিও তো মানুষ। আমারও তো কষ্ট হয়। কাছের মানুষগুলোর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনে ভয় পেয়েছি। প্রিয় মানুষগুলোর মৃত্যু ভিতর থেকে নাড়িয়ে দিয়েছে। আজ ১৭ মাস ধরে নিউ ইয়র্কে থাকা আমার পরিবারের কাছে যেতে পারিনি। বাড়িতে তিনটে বাচ্চা, আমাকে আর সানিকে কাজে যেতে হচ্ছে। ওদের জন্যও ভয় লাগে। আসলে এই সময়টা সবার কাছেই খুব কঠিন।’

বন্ধ করুন