বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কঙ্গনার সঙ্গে মাস খানেকেই সম্পর্ক ‘বিষাক্ত’ হয়ে উঠেছিল! ফাঁস করলেন অধ্যয়ন সুমন
অধ্যয়ন সুমন-কঙ্গনা রানাওয়াত
অধ্যয়ন সুমন-কঙ্গনা রানাওয়াত

কঙ্গনার সঙ্গে মাস খানেকেই সম্পর্ক ‘বিষাক্ত’ হয়ে উঠেছিল! ফাঁস করলেন অধ্যয়ন সুমন

  • ২০০৮ সালে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের সঙ্গে মাস খানেকের জন্য় সম্পর্কে ছিলেন রাজ অভিনেতা অধ্যয়ন সুমন। 

২০০৮ থেকে ২০০৯ সালের মধ্যে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের সঙ্গে বেশ কয়েক মাস সম্পর্কে ছিলেন অভিনেতা অধ্যয়ন সুমন। ‘Raaz: The Mystery Continues’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন দুজনে। যদিও কঙ্গনার সঙ্গে সম্পর্ককে ‘টক্সিক’ অর্থাৎ বিষাক্ত বলে আখ্যা দিয়েছেন বলি কুইনের প্রাক্তন প্রেমিক অধ্যয়ন। এমনকি তিনি আরও বলেছিলেন, তিনি 'প্রচণ্ড মানসিক অস্থিরতার' মধ্য দিয়ে কাটিয়েছিলেন। 

২০১৬ সালে পুরনো এক সাক্ষাৎকারে অধ্যয়ন জানিয়েছিলেন, কীভাবে তাঁকে 'ফ্লপ অভিনেতা' বলা হয়েছিল। যদিও তিনি সাক্ষাৎকারে কোনও রকমের কঙ্গনার নাম তোলেননি। এমনকি মানসিক শান্তি পেতে নাকি তাঁকে ‘প্রচার-সন্ধানী’ বলেছিলেন নায়িকা। অধ্যয়ন সুমন আরও জানিয়েছেন, তিনি 'মানসিক বন্ধন' চেয়ে ছিলেন কিন্তু অভিনেত্রীর ব্যবহারের জন্য পিছনে সরে আসতে বাধ্য় হন। সম্পর্কে কী বিষাক্ত হয়ে উঠেছিল? প্রশ্নের জবাবে অধ্যয়ন সুমন বলেন, ‘হ্য়াঁ, অবশ্যই’।

এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিনেতা বলেন, 'আমি মনে করি ওই বিশেষ সম্পর্কের মধ্যে অনেক কিছু ঘটেছে, আবেগগতভাবে। তিনি বলেছিলেন যে একজন 'তরুণ, চিত্তাকর্ষক মন' হওয়ায় কিছু জিনিস থেকে বেরিয়ে আসতে তাঁর সময় লেগেছিল। ‘অনেক বছর ধরে যেসব জিনিস ঘটেছিল, আমার পক্ষে বেরিয়ে আসাটা কঠিন হয়ে উঠেছিল। কেন আমি এগিয়ে যেতে পারছিলান না জানি না! এমনকি কেন অনুমতি দিইনি তাও জানিনা!’

অধ্যয়ন সুমন-কঙ্গনা রানাওয়াত
অধ্যয়ন সুমন-কঙ্গনা রানাওয়াত

অভিনেতা আরও বলেন, তিনি মনে করেন, যুদ্ধটা অন্যের সঙ্গে ছিল না। নিজের সঙ্গে ছিল। তখন নিজের থেকে তাঁর মনে হতে শুরু করে, ‘আমি বাধা দিলে হয়তো, এটা না করলে হয়তো, কেন আমি কারও কথা শুনিনি। অবশ্যই, সেখানে একটি প্রচণ্ড মানসিক অস্থিরতা ছিল’। 

অধ্যয়ন আরও জানিয়েছেন একটা পরিস্থিতিতে এসে তিনি ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছেন। তিনি তাঁর বাবা শেখর সুমনের কথাও শেয়ার করেছিলেন। যা তাঁকে বিচ্ছেদের পরে দুঃখ কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করেছিল। তিনি বলেছিলেন, ‘আমার বাবা আমাকে বলেছিল, কেউ ভাল অথবা খারাপ হয় না। কখনও তুমি কারও সাথে সম্পর্কে আসো, এমন নয় একে অপরের সঙ্গে থাকতেই হবে। এসব না ভেবে, জীবনে এগিয়ে যাওয়া উচিত’।

 

 

বন্ধ করুন