বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > গ্রেফতারির পর ‘পর্ন আর বেশ্যাবৃত্তির মধ্যে পার্থক্য’ নিয়ে করা শিল্পা শেট্টি-র স্বামী রাজ কুন্দ্রার টুইট ভাইরাল!
রাজ কুন্দ্রা ও শিল্পা শেট্টি। (ফাইল চিত্র)
রাজ কুন্দ্রা ও শিল্পা শেট্টি। (ফাইল চিত্র)

গ্রেফতারির পর ‘পর্ন আর বেশ্যাবৃত্তির মধ্যে পার্থক্য’ নিয়ে করা শিল্পা শেট্টি-র স্বামী রাজ কুন্দ্রার টুইট ভাইরাল!

  • ব্যবসায় ৮ থেকে ১০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন শিল্পা শেট্টি-র স্বামী, দাবি মুম্বই পুলিশের।

সোমবার রাতে পর্ন ফিল্ম তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে। মুম্বই পুলিশ ক্রাইম ব্রাঞ্চের পক্ষ থেকে গ্রেফতার করা হয় ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রা-কে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ পর্ন বানানোর পাশাপাশি তিনি তা বিশেষ অ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতেন। 

আর রাজকে গ্রেফতারের পর তাঁর করা পুরনো দু'টি টুইট ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ২০১২ সালে এই টুইট করেছিলেন রাজ। যেখানে তিনি প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছিলেন ‘পর্ন ফিল্ম বানানোর সময় টাকার জন্য যদি ক্যামেরার সামনে সেক্স করা হয় তবে তা বেশ্যাবৃত্তির থেকে আলাদা হয় কী করে’! এটি করা হয়েছিল ২০১২ সালের মার্চ মাসে।  তার দু'মাস পর আরও একটি টুইট করেন রাজ কুন্দ্রা। যেখানে তিনি লিখেছিলেন, ‘অভিনেতারা ক্রিকেট খেলছে, ক্রিকেটাররা রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছে, রাজনৈতিক নেতারা পর্ন দেখছেন, আর পর্ন তারকারা অভিনয়ে জগতে আসছেন’। আপাতত রাজের করা এই দুটো টুইট ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। নেটিজেনদের তির্যক মন্তব্যের মুখোমুখি হতে হয়েছে তাঁকে। এমনকী, শিল্পাকে ট্যাগ করেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশবাসী।

রাজ কুন্দ্রার করা টুইট। 
রাজ কুন্দ্রার করা টুইট। 

প্রসঙ্গত, জানা যাচ্ছে গ্রেফতারের আগে অর্থপাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অপরাধে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED) তলব করে রাজকে। এর আগে ২০১৩-য় মৃত গ্যাংস্টার ইকবাল মির্চির সঙ্গে অর্থপাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। সেটারই তদন্তে অভিনেত্রীর স্বামীকে সমন পাঠানো হয়েছিল।

জানা গিয়েছে, এই ব্যবসায় ৮ থেকে ১০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন শিল্পা শেট্টি-র স্বামী, দাবি মুম্বই পুলিশের। ছবি শ্যুটিংয়ের পর তা নির্দিষ্ট অ্যাপের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেওয়া হত বিদেশে। আর বিদেশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে তা দেখা যেত। উমেশ কামাথ নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতারের পর গোটা বিষয়টি সামনে আসে মুম্বই পুলিশের। এর আগে এই মামলায় এক অভিনেত্রীকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। চাঁর ইমেল থেকে মিলেছে একাধিক এই ধরনের ভিডিও। বেশিরভাগ ছবিই আমেরিকায় পাঠানো হত। এবং এক-একটি ছবির জন্য নেওয়া হত দু’ থেকে আড়াই লক্ষ টাকা।

বন্ধ করুন