বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > পুলিশ কর্তার ঠোঁটে ঠোঁট! কারামুক্ত হয়ে ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়ে মুখ খুললেন পরীমনি
পরীমনি (ছবি-ফেসবুক)
পরীমনি (ছবি-ফেসবুক)

পুলিশ কর্তার ঠোঁটে ঠোঁট! কারামুক্ত হয়ে ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়ে মুখ খুললেন পরীমনি

  • ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়ে মুখ খুললেন পরীমনি।

মাদক মামলায় গত মাসে গ্রেফতার হন বাংলাদেশের অভিনেত্রী পরীমনি। ২৬ দিন জেলে থাকার পর আপাতত জামিনে মুক্ত তিনি। কিন্তু জেলে থাকাকালীন অভিনেত্রীর বেশ কিছু ব্যক্তিগত ছবি এবং ভিডিয়ো ফাঁস হয় (এই ভিডিয়োগুলির সত্যতা যাচাই করে দেখেনি ‘হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা ডিজিটাল’)। এই বিষয় এবার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী। বাংলাদেশের ‘সময় টিভি’-র খবর অনুযায়ী, পরীমনি জানিয়েছেন, তাঁর ফোনে থাকা ভিডিয়োগুলিই প্রকাশ্যে আনা হয়েছে।

অভিনেত্রীর গ্রেফতারের পরই ওপার বাংলার পুলিশকর্তা মো. গোলাম সাকলায়েনের সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে কাটাছেঁড়া শুরু হয়। সোশ্যাল মিডিয়াতে তাঁদের একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়। ভিডিয়োতে গোলাম সাকলায়েনের জন্মদিন পালন হচ্ছে। এক‌টা নীল রঙের কেক কা‌টছেন পুলিশ আধিকারিক। আর তাঁর পাশেই বসে আছেন পরীমনি। দু'জনে হাত ধরে কেক কাটলেন এবং সাকলায়েনকে কেক খাইয়ে দিলেন পরী। তারপরে চুমু খেলেন তদন্তকারী অফিসারের ঠোঁটে। শুধু তাই নয়, এরপর একটা বড় কেকের টুকরো নিজের মুখে নিয়ে খাইয়ে দিতে দেখা গেল সাকলায়েনকে।

এই সব ছবি প্রকাশ্যে আসার পরই বিব্রত অভিনেত্রী। বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, নায়িকা বলেন, ‘আমার ফোন, গাড়ি সব তদন্তকারীরা নিয়ে নিয়েছে। যেসব ভিডিয়ো বাইরে এসেছে সেগুলি সব ওই ফোনেই ছিল। আমার ব্যক্তিগত ভিডিয়ো লিক করার অধিকার কারও নেই।’ তাঁর দাবি, তিনি যে বাড়িতে ছিলেন সেই বাড়ির সিসিটিভি ফুটেজও পুলিশ খতিয়ে দেখেছে। 

পরীমনি দাবি করেন, কীভাবে তাঁকে হেনস্তা করা হয়েছে। রীতিমত নাটক করে পুলিশ তাঁকে থানায় নিয়ে যায়। তাঁর সঙ্গে কেমন ব্যবহার করা হয়েছে সব কিছুই তিনি জানাবেন। নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করে তিনি বলেন, ‘আমি কী এমন করেছি? আমি শুরু থেকেই স্ট্রং ছিলাম। আমি যদি দোষী হতাম, তাহলে তো আমি ভেঙে পড়তাম। আমার সঙ্গে কী হয়েছে সব বলব। আমাকে একটু সময় দিন। আমি একমাস ধরে মানসিক অশান্তির মধ্যে ছিলাম।'

অভিনেত্রীর কথায়, তিনি প্রায় ‘পাগল’ হয়ে গিয়েছিলেন সেই সময়। রাতের পর রাত ঘুম হয়নি তাঁর। পাশাপাশি তিনি আরও অভিযোগ করেন, অনেকেই নিজেদের সাংবাদিক বলে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ছবি তুলেছে এবং ইউটিউবে ‘রসালো হেডিং’ দিয়ে নানা ‘কনটেন্ট’ বানিয়েছে।

গত ৪ঠা অগস্ট মাদককাণ্ডে গ্রেফতার হয়েছিল ওপার বাংলার অন্যতম চর্চিত নায়িকা পরীমনি। ২৬ দিন পর জেল থেকে জামিনে মুক্তি পান নায়িকা। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ছাড়া পান তিনি। মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর আদালতের দায়রা বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ পরীমণির জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। 

 

 

বন্ধ করুন