বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Nora Fatehi: ৭ ঘন্টা ধরে ম্যারাথন জেরা! ২০০ কোটির প্রতারণা মামলায় জ্যাকলিনের পর বিপাকে নোরা
এবার বিপাকে নোরা

Nora Fatehi: ৭ ঘন্টা ধরে ম্যারাথন জেরা! ২০০ কোটির প্রতারণা মামলায় জ্যাকলিনের পর বিপাকে নোরা

  • Nora Fatehi: ২০০ কোটির প্রতারণা মামলায় এবার বিপদে নোরা, সাত ঘন্টা ধরে জেরা করল দিল্লি পুলিশের ইকোনমিং উইংস। 

২০০ কোটির প্রতারণা মামলায় ইডি আগেই চার্জশিট পেশ করেছে অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডিজের বিরুদ্ধে। এবার এই মামলা-তেই বিপদে বলিউডের অপর বিদেশি সুন্দরী নোরা ফতেহি। সুকেশ চন্দ্রশেখরের কাছ থেকে দামী-দামী উপহার নেওয়ার অভিযোগ আগে থেকেই রয়েছে নোরার বিরুদ্ধে। বলিউডের ‘সাকি সাকি’ গার্লকে এই মামলায় শুক্রবার ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ করল দিল্লি পুলিশের ইকোনমিক উইংস। সাত ঘন্টা ধরে জেরা করা হয় নোরাকে এমনটাই জানা যাচ্ছে সূত্র মারফত। 

দিল্লি পুলিশের ইকোনমিক উইংস-এর তরফে দায়ের এফআইআরের ভিত্তিতে এই মামলার তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় সংস্থা ইডি, পাশাপাশি নিজেদের তদন্ত জারি রেখেছে দিল্লি পুলিশের ইকোনমিক উইংস (EOW)। তোলাবাজির মামলায় অভিযুক্ত জালিয়াত সুখেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যুক্ত ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে ইডি এবং দিল্লি পুলিশের ইকোনমিক উইংস। 

সূত্রের খবর, এদিন নোরাকে ৫০টিরও বেশি প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেন তদন্তকারীরা। কী কী উপহার সুকেশের কাজ থেকে পেয়েছেন নোরা, কার সঙ্গে নোরার কথা হত? কীভাবে সুকেশের সঙ্গে তাঁর পরিচয়? তারপর সম্পর্ক কেমনভাবে এগোল? এই সব তথ্য জানতে চায় পুলিশ। নোরা জানিয়েছেন, জ্যাকলিনের সঙ্গে তাঁর কোনও সম্পর্ক নেই। আলাদা আলাদাভাবে তাঁদের সুকেশের সঙ্গে কথা হয়েছে। তদন্তে সহযোগিতা করছেন নোরা, খবর সূত্রের।

‘প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট’-এর আওতায় ইডি আধিকারিকদের সামনে আগেই বয়ান নথিভুক্ত করেছেন নোরা, তবুও বিতর্ক পিছু ছাড়েনি তাঁর। উল্লেখ্য, গত মাসেই এই আর্থিক কেলেঙ্কারিকে জ্যাকলিনকে অভিযুক্ত হিসাবে পেশ করেছে ইডি।

দিল্লি হাইকোর্টে পেশ করা সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট স্পষ্ট জানিয়েছে জেলবন্দি জালিয়াত সুকেশ চন্দ্রশেখরের থেকে লাভবান হয়েছেন জ্যাকলিন। কনম্যান সুকেশ চন্দ্রশেখরের কালিমালিপ্ত অতীতের কথা জেনেও কেবলমাত্র টাকার লোভের তাঁর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হন জ্যাকলিন দাবি ইডির। এমনকী ওয়েব সিরিজের লেখকের পারিশ্রমিক পর্যন্ত সুকেশের কাছ থেকে আদায় করেছিলেন নায়িকা। অন্যদিকে ইডিকে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, কনম্যান সুকেশ চন্দ্রশেখরের কাছ থেকে বলিউডের অনেক তারকাই উপহার নিয়েছে, তাহলে তার দিকে আঙুল উঠছে কেন? পরোক্ষভাবে নোরার দিকেই ইঙ্গিত করেন জ্যাকলিন। 

সরকারি আধিকারিক সেজে একাধিক ব্যক্তির থেকে টাকা হাতিয়েছেন সুকেশ চন্দ্রশেখর। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এই মামলায় ইডির হাতে গ্রেফতার হন সুকেশ এবং তাঁর স্ত্রী লীনা মারিয়া পল। গ্রেফতারির পর সুকেশের সঙ্গে জ্যাকলিন ফার্নান্দিজের ঘনিষ্ঠতার কথা প্রকাশ্যে আসে। তদন্তকারীদের সুকেশ জানায়, অভিনেত্রীকে ৫.৭১ কোটি টাকার উপহার দিয়েছে সুকেশ চন্দ্রশেখর। অভিনেত্রীর পরিবারের লোকজনকেও কোটি কোটি টাকা দিয়েছে সে। জ্যাকলিনের সঙ্গে সম্পর্কে থাকবার কথা নিজের মুখেই ইডির আধিকারিকদের জানিয়েছে সুকেশ। যদিও নায়িকা সেকথা অস্বীকার করেছেন, তবে দুজনের ফাঁস হওয়ার ঘনিষ্ঠ ছবি সুকেশের দাবিকেই সত্যি প্রমাণ করছে। 

জালিয়াতির এই মামলায় ইতিমধ্যেই ঘোর বিপাকে জ্যাকলিন, এবার বিপদ বাড়ছে নোরা ফতেহিরও। তবে এই নিয়ে এখনও কোনওরকম বিবৃতি দেননি নোরা ফতেহি। 

 

বন্ধ করুন