বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুশান্ত মৃত্যু মামলার মাঝে আরও এক বিহারি অভিনেতার ‘আত্মহত্যা’ মুম্বইয়ে
অক্ষয় উত্কর্ষ (ফাইল ছবি)
অক্ষয় উত্কর্ষ (ফাইল ছবি)

সুশান্ত মৃত্যু মামলার মাঝে আরও এক বিহারি অভিনেতার ‘আত্মহত্যা’ মুম্বইয়ে

  • তবে পরিবারের দাবি খুন করা হয়েছে অক্ষত উত্কর্ষকে। মুম্বই পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছে প্রয়াত অভিনেতার পরিবার।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলার তদন্ত জারি রয়েছে। সুশান্তের মৃত্যুর পর প্রায় ১০৪ দিন অতিক্রান্ত, তবে থামছে না 'জাস্টিস অফ সুশান্ত'-এর লড়াই। এর মাঝেই আরও একটা দুঃসংবাদ বলিউড থেকে। ফের অকালে ঝরে গেল আরও একটা প্রাণ। আত্মহত্যা করলেন অভিনেতা অক্ষত উত্কর্ষ। গত রবিবার রাতে রহস্যজনক পরিস্থিতিতে ২৬ বছর বয়সী এই উঠতি অভিনেতার মরদেহ উদ্ধার করা হয় তাঁর অন্ধেরির অ্যাপার্টমেন্ট থেকে। অম্বোলি পুলিশ জানিয়েছে, আত্মহত্যা করেছেন অভিনেতা। 

অন্ধেরির ওই ফ্ল্যাটে এক মহিলা রুমমেটের সঙ্গে থাকতেন অক্ষত। পুলিশকে সে জানিয়েছে রবিবার রাতে একদম স্বাভাবিক ছিল সে। প্রতিদিনের মতোই ডিনার সেরে তাঁরা ঘুমোতে যান। এরপর রাত ১১.৩০ নাগাদ ওয়াশরুমের যাওয়ার জন্য ঘুম থেকে উঠেন ওই মহিলা। সেই সময়ই অক্ষতের মরদেহ নজরে আসে তাঁর।মুহূর্তের মধ্যেই পুলিশকে ফোন করে সে। অক্ষতকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। এরপর তাঁর দেহ কুপার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় অক্ষতের মরদেহ। সেখানেই ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। 

অম্বোলি পুলিশের তরফে সিনিয়ার পুলিশ আধিকারিক সোমেশ্বর কান্তে জানান- অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে কোনওরকম ফাউল প্লে-র সম্ভাবনা বাদ দেওয়া হয়েছে। রবিবার রাত ১০ থেকে ১১.৩০টার মধ্যে মৃত্যু হয়েছে অক্ষতের জানিয়েছে পুলিশ।  তিনি আরও জানান, অক্ষতের বন্ধুর বয়ান অনুসারে গত কয়েক মাস ধরে অবসাদে ভুগছিলেন প্রয়াত অভিনেতা। লকডাউনের সময় হাতে কোনও কাজ না থাকায় পরিবার ও বন্ধুদের থেকে অনেক টাকা ধার করেছিল সে, এই নিয়েই দুশ্চিন্তায় ভুগছিল অক্ষত। 

মুম্বইতে গত কয়েক বছর ধরেই স্ট্রাগল করছিলেন মুজফ্ফরপুরের অক্ষত উত্কর্ষ। বেশ কয়েকটি প্রোজেক্টে অভিনয়ের কাজও করেছিলেন। রবিবারের দাবি আত্মহত্যা নয় খুন করা হয়েছে অক্ষতকে। তাঁর মামা রঞ্জিত সিং জানিয়েছেন রবিবার রাতে তাঁর মৃত্যুর খবর পৌঁছায় পরিবারের কাছে। তাঁর দাবি রবিবার রাত ৯ টা নাগাদ বাবার সঙ্গে ফোনে কথা হয় অক্ষতের। খুব স্বাভাবিকভাবেই কথা বলেছিল সে। এর কয়েকঘন্টার মধ্যেই ছেলের মৃত্যু সংবাদ পান তিনি। 

এনএনএন হিন্দি নিউজ এইন্টিনের রিপোর্টে বলা হয়েছে এই মামলায় পরিবার হত্যার অভিযোগ আনলেও মুম্বই পুলিশের দাবি আত্মহত্যা করেছেন অক্ষত। এই মামলায় পরিবার পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছে। তাঁদের দাবি এফআইআর পর্যন্ত দায়ের করতে অস্বীকার করেছে মুম্বই পুলিশ। 

মঙ্গলবার সকালে মুম্বই থেকে পাটনা পৌঁছায় অক্ষত উত্কর্ষের মরদেহ। 

বন্ধ করুন