বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aindrila Sharma health update: শরীরে মিলল সংক্রমণ, এখনও ভেন্টিলেশন সাপোর্টেই রয়েছেন ঐন্দ্রিলা: রিপোর্ট

Aindrila Sharma health update: শরীরে মিলল সংক্রমণ, এখনও ভেন্টিলেশন সাপোর্টেই রয়েছেন ঐন্দ্রিলা: রিপোর্ট

ঐন্দ্রিলা শর্মা

Aindrila Sharma Health Update: ভেন্টিলেশন সাপোর্ট কমানো হলেও এখনও সম্পূর্ণ রূপে তা বন্ধ করা হয়নি। ঐন্দ্রিলার শরীরে সংক্রমণ রয়েছে, তাই এখনই অভিনেত্রীকে বিপন্মুক্ত বলা যাবে না, তবে চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন ঐন্দ্রিলা।

এখনও বিপদমুক্ত নন ঐন্দ্রিলা শর্মা। চব্বিশ ঘন্টা আগেই সব্যসাচীর ফেসবুক পোস্ট দেখে খানিকটা হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছিলেন ঐন্দ্রিলা ভক্তরা। নায়িকার প্রেমিক তথা সবচেয়ে কাছের বন্ধু জানিয়েছিলেন ভেন্টিলেশন থেকে বার করা হয়েছে অভিনেত্রী। তবে হাসপাতাল সূত্রে খবর, এখনও ভেন্টিলেশনেই আছেন ঐন্দ্রিলা। 

মঙ্গলবার হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, ভেন্টিলেশন সাপোর্টের মাত্রা কমানো হয়েছে, কিন্তু পুরোপুরি ভেন্টিলেশন সাপোর্টের বাইরে আনা হয়নি তাঁকে। ঐন্দ্রিলার দেহে সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে, জানানো হয়েছে হাসপাতালের তরফে। তাই এখনই ঐন্দ্রিলাকে বিপন্মুক্ত বলে ঘোষণা করতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। আশার কথা, চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন ঐন্দ্রিলা।

সোমবার সব্যসাচী চৌধুরী ফেসবুক পোস্টে দ্বিতীয়বার ঐন্দ্রিলার শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে আপটেড দিলেন। তিনি লেখেন, ‘হাসপাতালে ছয় দিন পূর্ণ হলো আজ, ঐন্দ্রিলার এখনও পুরোপুরি জ্ঞান ফেরেনি। তবে ভেন্টিলেশন থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছে, শ্বাসক্রিয়া আগের থেকে অনেকটাই স্বাভাবিক হয়েছে, রক্তচাপও মোটামুটি স্বাভাবিক। জ্বর কমেছে। ওর মা যতক্ষণ থাকে, নিজের হাতে ওর ফিজিওথেরাপি করায়, যত্ন নেয়। বাবা আর দিদি ডাক্তারদের সাথে আলোচনা করে। সৌরভ আর দিব্য রোজ রাতে আমার সাথে হাসপাতালে থাকতে আসে। আর আমি দিনে তিনবার করে গল্প করি ঐন্দ্রিলার সাথে। গলা চিনতে পারে, হার্টরেট ১৩০-১৪০ পৌঁছে যায়, দরদর করে ঘাম হয়, হাত মুচড়িয়ে আমার হাত ধরার চেষ্টা করে। প্রথম প্রথম ভয় পেতাম, এখন বুঝি ওটাই ফিরিয়ে আনার এক্সটার্নাল স্টিমুলি।’

পাশাপাশি ঐন্দ্রিলার শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম তথা ইউটিউব চ্যানেলে ভুয়ো খবর ছড়ানো হওয়ায় ক্ষুব্ধ সব্যসাচী। তিনি লেখেন-'আমার চোখে ওর স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটেনি, অবনতি ঘটেছে মানবিকতার। ‘ভালো আছে’ বলতে আমার ভয় লাগে, কিন্তু ঐন্দ্রিলা আছে। প্রচন্ডভাবে আছে। আমার সামনে শুয়ে থেকেও হয়তো কয়েক সহস্র মাইল দূরে আছে কিন্তু ঠিক ফিরে আসবে। ওর একা থাকতে বিরক্ত লাগে।'

সব্যসাচীর এই পোস্টই এখন আশার বাণী ঐন্দ্রিলার ভক্তদের কাছে। পাশাপাশি ঐন্দ্রিলার প্রেমিকের এই মনের জোরকেও কুর্নিশ জানাচ্ছে নেটপাড়া। 

গত মঙ্গলবার দুপুরে বাড়িতেই আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন ঐন্দ্রিলা। তাঁর মায়ের বক্তব্য অনুয়ায়ী, মিনিট দশেকের মধ্যেই অসাড় হয়ে গিয়েছিল অভিনেত্রীর শরীর। সঙ্গে বমি করছিলেন তিনি। এরপর সব্যসাচীকে ফোন করেন শিখা দেবী (ঐন্দ্রিলার মা)। তারপর ঐন্দ্রিলাকে নিয়ে যাওয়া হয় নারায়াণা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে। সেই সময় চিকিৎসকরা জানান ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত অভিনেত্রী। ওইদিন রাতেই তাঁর অস্ত্রোপচার হয়, তারপর থেকেই ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রয়েছেন ঐন্দ্রিলা। দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুক ‘জিয়ন কাঠি’ নায়িকা, এমনটাই প্রার্থনা সবার। 

 

বন্ধ করুন