বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aishwarya Rai Bachchan: পায়ে হাত দিয়ে রজনীকান্তকে প্রণাম ঐশ্বর্যর, বচ্চন বধূর আচরণে মুগ্ধ নেটপাড়া
রজনীকান্ত ও মনিরত্নমের সঙ্গে ঐশ্বর্য

Aishwarya Rai Bachchan: পায়ে হাত দিয়ে রজনীকান্তকে প্রণাম ঐশ্বর্যর, বচ্চন বধূর আচরণে মুগ্ধ নেটপাড়া

  • Aishwarya Rai Bachchan: ২.০ সহ-অভিনেতা রজনীকান্তকে পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করলেন ঐশ্বর্য, গুরু মণিরত্নমকে দেখেই ভিড় ঠেলে দৌড়ালেন, দেখুন ভিডিয়ো- 

দীর্ঘদিন পর রুপোলি পর্দায় ফিরছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন। মণিরত্নমের ‘পোন্নিয়ান সেলভান’ (Ponniyin Selvan)-এ কেন্দ্রীয় চরিত্রে রয়েছেন নীল নয়না সুন্দরী। মঙ্গলবার চেন্নাই-তে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রকাশ্যে এল ‘পোন্নিয়ান সেলভান’-এর ট্রেলার ও গান। আর এই তামিল ছবির ট্রেলার ও গান লঞ্চের অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিলেন ‘থালাইভা’ রজনীকান্ত। শুধু তাই নয়, এই তারকাখচিত অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন কমল হাসান-সহ এই ছবির সকল কলাকুশলী।

দীর্ঘসময় পর ‘২.০’ কো-স্টার রজনীকান্তের দেখা পেয়ে উচ্ছ্বসিত ঐশ্বর্য। পর্দায় রজনীকান্তের সঙ্গে রোম্যান্স করলেও শ্বশুরমশাইয়ের ঘনিষ্ঠ বন্ধু রজনীকান্তের সঙ্গে স্নেহের সম্পর্ক ঐশ্বর্যর। এদিন থালাইভাকে দেখা মাত্রই পা ছুঁয়ে আর্শীবাদ নিলেন প্রাক্তন বিশ্ব সুন্দরী।

মণিরত্নম পরিচালিত এই তামিল ছবির প্রধান চরিত্র নন্দিনী। ছবিতে নন্দিনী এবং তার মা মন্দাকিনী দেবী, দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঐশ্বর্য। শুধু তাই নয়, পরিচালক মণিরত্নমের দেখা পাওয়া মাত্রই ভিড় ঢেলে দৌড়ে গিয়ে তাঁকে জড়িয়ে ধরেন ঐশ্বর্য। একথা কারুর অজানা নয় মণিরত্নম-কে নিজের অভিনয়ের গুরু মানেন ঐশ্বর্য। ১৯৯৭ সালে এই তামিল পরিচালকই অভিনয়ের দুনিয়ায় লঞ্চ করেছিলেন সদ্য বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট জেতা এই সুন্দরীকে। ছবির নাম ছিল ‘ইরুভর’। হিন্দি বলয়ের দর্শকরা যে ছবিকে দেখেছে ‘জিনস’ নামে।

এরপর ‘গুরু’ (২০০৭) এবং ‘রাবণ’ (২০১০) একসঙ্গে কাজ করেছেন ঐশ্বর্য ও মণিরত্নম। সেই দু'বার ঐশ্বর্যর সঙ্গে 'মণি স্যার'-এর ছবির অংশ ছিলেন অভিষেক বচ্চনও। মণিরত্নমকে নিজের গুরু বলে উল্লেখ করে এদিন ঐশ্বর্য জানান, ‘আমি ওঁনার কাছ থেকেই শিখেছি কাজের প্রতি আসক্ত কীভাবে বতে হয়, কেমনভাবে কোনও কাজের প্রতি নিষ্ঠাবান থাকা যায় এবং লক্ষ্যে অবিচল থাকতে হয়’। অন্যদিকে রজনীকান্ত ও কমল হাসানের উদ্দেশে অভিনেত্রী বলেন- ‘রজনী স্যার এবং কমল স্যার- আপনাদের দুজনের এখানে উপস্থিতিটা আমার স্বপ্নের মতো লাগছে। আমরা আপনাদের কাজ দেখে শিখে চলেছি, আপনাই অনুপ্রেরণা ছিলেন, আছেন এবং আজীবন থাকবেন’।

এদিন কালো রঙা সালোয়ার কামিজে দেখা মিলল ঐশ্বর্য, সঙ্গে সোনালি জরির কাজ করা দুপাট্টায় ঝলমলে অ্যাশ। এক কথায় এদিনের অনুষ্ঠানের রূপের দ্যুতি ছড়ালেন অভিষেক ঘরণী।

তামিল লেখক কল্কি কৃষ্ণমূর্তির ঐতিহাসিক উপন্যাস ‘পোন্নিয়ান সেলভান’ (Ponniyin Selvan) অবলম্বনে তৈরি এই ছবি। ছবির প্রেক্ষাপট দশম শতাব্দীর চোল সাম্রাজ্যের সূচনাকাল। ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ের ফলে সম্রাটের সম্ভাব্য উত্তরসূরিদের সম্পর্কে ফাটল ধরে-সেই গল্পই এখানে উঠে আসবে। ছবিতে বিক্রম-ঐশ্বর্য ছাড়া আরও অভিনয় করছেন বিক্রম, কার্তি, জয়াম রবি, তৃষা কৃষ্ণন এবং মোহন বাবু। ছবিতে দ্বৈত চরিত্রে থাকছেন ঐশ্বর্য। পাজুভোর-এর রাজকুমারী নন্দিনী এবং রাজমাতা মন্দাকিনী দেবী।

রাজকীয় বেশে ঐশ্বর্য
রাজকীয় বেশে ঐশ্বর্য

চলতি বছরের ৩০শে সেপ্টেম্বর হিন্দি, তামিল,তেলুগু, মালায়ালাম এবং কন্নড় ভাষায় মুক্তি পাবে এই ছবি।

বন্ধ করুন